ওয়ার্ডপ্রেস শিখুন (A2z) – পর্ব 4

টিউন করেছেন sourav | July 24, 2013 12:32 | পোস্টটি 7,905 বার দেখা হয়েছে

ওয়ার্ডপ্রেস শিখুন (A2z) – পর্ব 4


ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাসবোর্ড

আজ আমারা ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাসবোর্ডের সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দিব।ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাসবোর্ড হলো আপনার ব্লগের এ্যাডমিন প্যানেল যেখান থেকে আপনি ইচ্ছা করলে নতুন পোষ্ট যোগ , পোষ্ট মুছে ফেলতে , থিমস্ পরিবর্তন , প্রয়োজনীয় সেটিংস সম্পাদন করতে পারেন। তো চলুন শুরু করি

১. প্রথমেই আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে লগিন করুন। আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের লগিন পেজ ঠিকানা হবেঃ yoursitename.extesion/wp-login.php

২. লগিন এর পরে যে পেজটি পাবেন তা নিচের মতো… এটিই হল বাই ডিফল্ট ওয়ার্ডপ্রেস সাইট বা ব্লগের ড্যাশবোর্ড প্যানেল।

01

ওয়ার্ডপ্রেস আডমিন প্যানেল

এবার আসুন ধাপে ধাপে ড্যাশবোর্ড এর প্রতিটি সেকশনের সাথে পরিচিত হইঃ

৩. Dashboard: ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে লগিন করেই আপনি যে পেজটি পাবেন সেটিকে ড্যাশবোর্ড বলে। এই সেকশনে আপনি যা যা পাচ্ছেনঃ

02

হোম-আপডেট

ক) Home: এই সেকশনের আওতায় আপনি আপনার সাইটে লগিন করেই যে পেজটি পাবেন তা নিচে দেখানো ড্যাশবোর্ড সেকশনের Home এ ক্লিক করেই আসতে পারবেন ড্যাশবর্ডের যেকোনো সেকশন থেকে।

খ) Updates: এই মেন্যু থেকে আপনি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে আপনার ইন্সটল করা যেকোনো প্লাগিং, থীম এবং ওয়ার্ডপ্রেস সিএমএস-টির নতুন কোন ভার্সন বের হলে তা জানতে এবং এই পেজ থেকে সরাসরি আপডেট করে নিতে পারবেন।

03

আপডেট পেজ

৪ Posts: ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে নতুন কোন লিখা দেওয়াকে পোস্ট বলে। এই সেকশনে আপনি যা যা পাচ্ছেনঃ

04

পোষ্ট সেকশন

ক) All Posts: আপনি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগে বা সাইটে যত গুলো লিখা লিখবেন। সেটা সাময়িক সেভ করে রাখুন অথবা পাবলিশ করুন না কেন, সব গুলো All Posts সেকশনে পাবেন।
খ) Add New: নতুন করে পোস্ট লিখতে Add New পেজ এর ব্যবহার হয়।
গ) Categories: সাইটে লিখার জন্য আলাদা আলাদা বিভাগ করতে চাইলে Categories পেজ এর ব্যবহার হয়।
ঘ) Tags: একই ঘরনার লিখা, যেগুলো মূলত পোস্টে লিখার শেষে প্রদর্শন করাতে চাইলে Tag এর ব্যবহার করতে হয়। আপনি চাইলে আগে থেকে Tag তৈরী করে রাখতে পারেন। নয়তঃ আপনি পোস্ট লিখার সময়ও উল্লেখ করতে পারবেন।

৫. ব্লগ পোস্টে কোন ছবি, ভিডিও বা অডিও যুক্ত করতে চাইলে Media সেকশনের ব্যবহার হয়। এই সেকশনে আপনি যা যা পাচ্ছেনঃ

05

মিডিয়া সেকশন

ক) Library: আগে থেকে আপলোড করে রাখা কোন ছবি, ভিডিও বা অডিও Library থেকে পোস্টে যুক্ত করতে পারবেন।
খ) Add New: নতুন করে কোন ছবি, ভিডিও বা অডিও যুক্ত করতে চাইলে Add New থেকে যুক্ত করতে পারবেন।

৬. Links: আপনার সাইট থেকে বহির্গামী লিঙ্ক সমূহ এখানে থেকে যুক্ত করতে এবং মুছে দিতে পারবেন। এই সেকশনে আপনি যা যা পাচ্ছেনঃ

06

লিঙ্ক সেকশন

ক) All Links: সাইটের সকল বহির্গামী লিঙ্ক এখানে পাবেন।
খ) Add New: নতুন করে বহির্গামী লিঙ্ক তৈরী করতে পাবেন। যেমনঃ ব্লগরোল(Blogroll)
গ) Link Categories: বিভাগ অনুযায়ী ব্লগরোল এর মতো আরও লিঙ্ক তৈরী করতে পারবেন এখানে থেকে।

৭. Pages: এই সেকশনে আপনি যা যা পাচ্ছেনঃ

07

পেজ সেকশন

ক) All Pages: আপনার সাইটের সকল পাতা এখানে পাবেন। যেমনঃ নীড়, সম্পর্কে, যোগাযোগ ইত্যাদি।
খ) Add New: নতুন করে কোন পাতা (Page) এখানে যুক্ত করতে পারবেন।

৮. Comments: এই সেকশন থেকে আপনি আপনার সাইটের সকল মন্তব্য যাচাই-বাছাই, পাবলিশ এবং মুছে দিতে পারবেন।

08

মন্তব্য সেকশন

৯. Appearance: Appearance বা সাজসজ্জা এটি ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের সবচেয়ে গুরুপ্তপুর্ণ একটি সেকশন। এই সেকশনে আপনি যা যা পাচ্ছেনঃ

09

এপিয়ারেন্স সেকশন

ক) Theme: এখানে থেকে নতুন থীম যুক্ত এবং মুছে দিতে পারবেন।
খ) Widgets: এখানে থেকে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের সাইডবারে উইজেট লাগাতে এবং মুছে দিতে পারবেন।
গ) Menus: এখানে থেকে নতুন মেন্যু তৈ করতে পাবেন। যেমনঃ নীড়, নীড়, সম্পর্কে, যোগাযোগ ইত্যাদি। উল্লেখ্যঃ পেজ এবং মেন্যু একই কাজ করে।
ঘ) Theme Options: কিছু টাকা দিয়ে কেনা প্রিমিয়াম এবং কিছু ক্ষেত্রে ফ্রী প্রিমিয়াম থীম সহজে কাস্টমাইজেশনের জন্য থীম নির্মাতারা এই অপশনটি সংযুক্ত করে দেন। তবে ৯০ শতাংশ ফ্রী থীমে এই অপশনটি থাকে না।
ঙ) Background: সাইটের পটভূমির রং পরিবর্তনের জন্য এই সেকশনটি ব্যবহার করতে পারবেন।
চ) Header: কোন থীমে যদি হেডারে ব্যানার ব্যবহারের ব্যবস্থা থাকে তবে আপনি এখানে থেকে নতুন করে ব্যানার যুক্ত এবং মুছে ফেলতে পারবেন।
ছ) Editor: আপনার সাইটের সকল ফাইলকে এখানে থেকে সম্পাদন করতে পারবেন।

১০. প্লাগিংস এমন একটি টুলস, যা দিয়ে আপনি অতি সহজেই আপনার সাইটকে কাঙ্ক্ষিত অবস্থায় নিয়ে যেতে পারবেন। এটা নিয়ে পরবর্তি পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করব। এক ঝলক দেখে নিই এই সেকশনে আপনি যা যা পাচ্ছেনঃ

10

প্লাগিন্স সেকশন

ক) Installed Plugging: এখানে আপনি আপনার সাইটে ইন্সটলকৃত সব প্লাগিংসগুলো দেখতে পারবেন।
খ) Add New: এখানে থেকে নতুন প্লাগিং যুক্ত করতে পারবেন।
গ) Editor: এখানে থেকে যেকোনো প্লাগিংস সম্পাদন করতে পারবেন।

১১. Users: এখান থেকে আপনি আপনার সাইটের ব্যবহারকারীদের নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন।

11

ক) All Users: এখানে থেকে আপনার সাইটের সব ব্যবহারকারীদের নিয়ন্ত্রন এবং দেখতে পারবেন।
খ) Add New: এখানে থেকে নতুন ব্যবহারকারী তৈরী করতে পারবেন।
গ) Your Profile: এখানে থেকে সাইটে আপনার নিজের প্রোফাইল সম্পাদন করতে পারবেন।

১২. Tools: এই সেকশন থেকে আপনি আপনার সাইটের লিখা, ইমেজ, ছবি অন্য ব্লগে নিয়ে যেতে, অন্য সাইট থেকে আপনার সাইটে নিয়ে আসতে এবং বুকমার্ক করতে পারবেন।

12

টুলস সেকশন

১৩. Settings: এই সেকশন থেকে আপনি আপনার সাইটের বিভিন্ন অংশের জন্য সেটিংস্‌ করে নিতে পারবেন। যেহেতু পরবর্তী পোস্টেই সেটিংস্‌ নিয়ে চিত্রভিত্তিক বিস্তারিত আলোচনা করবো তাই এই পোস্টে নতুন করে কিছু লিখলাম না।

13 copy

সেটিংস সেকশন

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড পরিচিতি পর্ব এখানেই শেষ। পরবর্তী পোস্ট নিয়ে আসছি শীঘ্রই।