ইউটিউব থেকে আয় করুন খুব সহজেই (পর্ব – ০৩)

Bns Bahar

Online Marketing Executive Manager at Civin Tech
লেখালেখি করতে ভালো লাগে তাছাড়াও লেখালেখি টাকে খুব উপভোগ করি ।সবার সাথে অভিজ্ঞতা শেয়ার করার চেষ্টা করি।
টিউন করেছেন Bns Bahar | March 10, 2016 12:12 | পোস্টটি 1,646 বার দেখা হয়েছে

প্রথমে আপনার ঠিক করতে হবে আপনি ইউটিউভ ভিডিও থেকে কি চান? শুধু ভিউ বাড়াবেন? তাহলে আপনি নিস অনুযায়ি ঠিক করেন এবং যে বিষয়ের উপর ভিডিও বানাবেন সে বিষয় খুঁজে বের করতে হবে। বিষয় খুঁজতে হলে আপনাকে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হবে। ইউটিউবের জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হলে প্রথমে একটা নিস সিলেক্ট করতে হবে। এভারগ্রিন নিস নির্বাচন করা ভালো । এতে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর পাওয়া যায়। যেমন :- ওয়েট লুস , ডগ ট্রেইনিং, সেলফ হেল্প , ডেটিং, মেইক মানি , রিলেসানশিপ ইত্যাদি। এই নিসগুলো নিয়ে কাজ করলে ইউটিউবে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর পাওয়া যাবে। সেই নিস নিয়ে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হবে। ইউটিউব ভিডিও রাঙ্ক করানোর জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হবে।

keyword-research-SEO

কিওয়ার্ড রিসার্চ কি ? 

যদি আমরা অর্গানিক অথবা ন্যাচারাল সার্চ কে বিবেচনায় নিয়ে কিওয়ার্ড রিসার্চ এর অর্থ বুঝতে চাই, তাহলে এক কথায় বলতে হবে কিওয়ার্ড রিসার্চ এর মূল অর্থ হচ্ছে যেইসব শব্দ বা কিওয়ার্ড ব্যবহার করে একজন কাস্টমার/রিডার/ভিজিটর আপনার পণ্য/ওয়েবসাইট/ব্লগ/ব্যবসা সার্চ ইঞ্জিন এর মাধ্যমে খুঁজে বের করবে, সেই শব্দ/শব্দগুচ্ছ/কিওয়ার্ড নিয়ে গবেষণা করাকেই কিওয়ার্ড রিসার্চ বলে।কিওয়ার্ডকে সাধারণত ৩ ভাগে ভাগ করা যায় । যেমন :

ক) ইনফরমেটিভ কিওয়ার্ড : যে সব কিওয়ার্ড দিয়ে মানুষ জানার জন্য সার্চ ইঙ্গিনে সার্চ দেয় সেই সব কিওয়ার্ডকে ইনফরমেটিভ কিওয়ার্ড বলে। ধরুন আপনি ইউটিউবে সার্চ দিলেন যে ” কিভাবে চিকন হওয়া যায় ”  এটি হচ্ছে ইনফরমেটিভ কিওয়ার্ড। মুলত আমরা ইনফরমেটিভ কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করব।

খ) অ্যাকশান বা বায়িং কিওয়ার্ড : যে সব কিওয়ার্ড দিয়ে সাধারনত কোন কিছু ক্রয় করা, সার্ভিস নেওয়া, কেনার আগ মূহুর্তের বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে জানতে চাওয়া, নির্দিষ্ট প্রোডাক্ট সম্পর্কে রিভিউ জানা ইত্যাদি বিষয়কে টার্গেট করে সেই সব কিওয়ার্ডকে আমারা অ্যাকশান বা বায়িং কিওয়ার্ড বলব। অর্থ্যাত অ্যাকশান কিওয়ার্ড হল সেই সব কিওয়ার্ড যার সর্বশেষ উদ্দেশ্য কোন একটি প্রডাক্ট কেনা বা সার্ভিস গ্রহন করা। বায়িং কিওয়ার্ডের উদাহরন দেওয়া হল- ” বাজারে এলো নতুন মোবাইল ” অথবা ” ৫০% ছাড়ে নোকিয়া হ্যান্ডসেট” এগুলো হচ্ছে অ্যাকশান বা বায়িং কিওয়ার্ড।

গ) লং টেইল কিওয়ার্ড : যে সব কিওয়ার্ড ৩ থেকে ৭ শব্দের মধ্যে হয় সেগুলোকে সাধারণত লং টেইল কিওয়ার্ড বলা হয়। লং টেইল কিওয়ার্ড ব্যবহারের প্রধান কারন হল এর এসইও কম্পিটিশন তুলনামুলক ভাবে কম থাকে। আর শর্ট কিওয়ার্ড গুলোর এসইও কম্পিটিশন তুলনা মুলক অনেক বেশি হয়ে থাকে।

আমরা কিওয়ার্ড সম্পর্কে জানলাম এখন আমরা কিভাবে ইউটিউব এর জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করব?

ইউটিউবের জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করার অনেক টুলস আছে । যেমন : কিওয়ার্ড প্লানার , কিওয়ার্ড টুল আইও , ডিসপ্লে প্লানার , অভারসাজেস , লং টেইল প্রু ইত্যাদি। আমরা কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য কিওয়ার্ড প্লানার ব্যবহার করব। কিওয়ার্ড প্লানার গুগলের একটি ফ্রি টুল। যা দিয়ে অতি সহজে কিওয়ার্ড খুঁজে বের করা যায়।

ইউটিউবের ভিডিও কীওয়ার্ড খুঁজার জন্য গুগল কিওয়ার্ড প্লানার টুলসের কাছ থেকে যে সব ডাটা আমাদের প্রয়োজন হবে নাম্বার অফ সার্চ ভলিউম (অর্থ্যাৎ, ঐ কিওয়ার্ডটি প্রতি মাসে কত বার সার্চ হয় তার সম্ভাব্য ডাটা) ।  যে কিওয়ার্ডগুলোর সার্চ ভলিউম প্রতি মাসে ৮০০ এর উপর হবে সে কিওয়ার্ডগুলো নিয়ে কাজ করলে ভালো ভিজিটর পাওয়া যাবে।

প্রথমে আপনি জিমেইলে সাইনইন করুন। তারপর ” গুগল অ্যাডওয়ার্ড কিওয়ার্ড প্লানার ” এ সাইন ইন করুন। আপনি যদি একেবারে নতুন অ্যাডওয়ার্ডে ঢুকেন সেক্ষেত্রে আপনাকে কিছু সেটিংস সেট করে নিতে বলবে। যেমন : আপনার দেশ ও আপনার কারেন্সি, দেশের সেকশানে আপনি বাংলাদেশ, আর কেরেন্সি সেকশনে আপনি ডলার দিয়ে নেক্সট/সেভ বাটনে চাপুন।

Screenshot_7

এমন একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন। “ইউর প্রোডাক্ট অর সার্ভিস’ এ আপনি যে নিস নির্বাচন করেছেন সেই নিস রিলেটেড একটি কিওয়ার্ড দিয়ে সার্চ দিবেন। যেমন : ধরি আপনার নিস হচ্ছে হেলথ তাহলে আপনি হেলথ রিলেটেড কিওয়ার্ড দিয়ে সার্চ দিবেন । হেলথ রিলেটেড কিওয়ার্ডগুলো হল – আপনি কিভাবে মোটা হবেন , ওজন কমাবেন কিভাবে , ডায়েট কন্ট্রোল ইত্যাদি অর্থাৎ হেলথ রিলেটেড যত টপিকস আছে সবগুলো থেকে খুঁজে খুঁজে কি ওয়ার্ড বের করতে হবে। তারপর ” গেট আইডিয়াস ” এ ক্লিক করুন ।

Screenshot_6

তারপর বাম পাশের বার থেকে “টারগেটিং” এ গিয়ে লোকেশন সেট করবেন আমেরিকা,ভাষা সেট করবেন ইংরেজি । বাম পাশের বার কিওয়ার্ড ফিল্টার থেকে – এভারেজ মান্তলি সার্চ ৮০০, সাজেসটেড বিড ১ ডলার এবং কম্পিটিশান লও সেট করে দিবেন। সার্চ ভলিউম প্রতি মাসে ৮০০ মানে বুজায় ঐ কিওয়ার্ডটা যে কিওয়ার্ডটা দিয়ে প্রতিমাসে গড়ে ৮০০ জন মানুষ সার্চ দেয়। লোকেশন সেট করবেন আমেরিকা কারণ আমেরিকাকে ইউটিউব প্রাধান্য দেয় অর্থাৎ আপনার ভিডিওটা যখন আমেরিকার মানুষ ভিও করবে তা ইউটিউব বেশি প্রাধান্য দিবে। তারপর  ” কিওয়ার্ড আইডিয়াস ” এ ক্লিক করলে আপনি অনেকগুলো কিওয়ার্ড পাবেন। এই কিওয়ার্ডগুলো দিয়ে আপনি ভিডিও বানালে সহজেই ভিউয়ার পাবেন কেননা এই কিওয়ার্ডগুলো বাছাই করা। আমরা অবশ্যই লং টেইল কিওয়ার্ড গুলো দিয়ে ভিডিও বানাবো যা ভিডিওকে সহজে রেঙ্ক করে। এছাড়া কিওয়ার্ড টুল আইও থেকেও আপনি আইডিয়া নিতে পারেন।

আজ এপর্যন্তই । পরবর্তী পর্বে নিয়ে আসব ভিডিও বর্ণনা অর্থাৎ ভিডিওতে কি থাকবে তা নিয়ে আলোচনা করব
ফেইসবুকে আমি …..

  • Akib Khan

    vai, wait for next post