ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে ক্যারিয়ার কিভাবে শুরু করবেন

টিউন করেছেন Harunor Rashid | December 17, 2015 16:31 | পোস্টটি 1,751 বার দেখা হয়েছে

ফ্রিল্যান্সিং বিষয় নিয়ে আমরা কম বেশী সবায় জানি।আপনি সহজে অন্ন কাজের পাশা পাশী এটি করতে পারেন ।বাংলাদেশ এ দিন দিন বেকার সংখ্যা বেড়ে চলছে , সেই তুলনায় কাজের পরিমাণ কম। একজন ছাত্র তার অধ্যয়ন কালে এর সাথে যুক্ত থেকে নিজেকে একজন ফ্রীলাঞ্চের হিসাবে গড়ে তুলতে পারে।একজন ফ্রীলাঞ্চের হিসাবে গড়ে তুলতে তার সঠিক নির্দেশনার দরকার তার জন্য তাকে কোন কোর্সে ভর্তি হতে হবে। কোর্সে ভর্তি না হয়ে আপনি কাজ শিকতে পারেন, তার জন্য আপনাকে Google, Youtube , Forum, Article এর সাহায্য শিকতে পারেন। আপনি প্রাথমিক অবস্হায় Ekram vi এর নির্দেশনা নিতে পারেন, অনি নিয়মিত বাংলাদেশ এর জনপ্রিয় পত্রিকা যুগান্তর(ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে ক্যারিয়ার) শিরোনামে নিয়মিত লেখা লেখি করেন,এ লেখা পড়ে কাজ শুরু করতে পারেন ।

 

Untitled-1

পর্ব:১- ফ্রিল্যান্সিংবিষয়টি কি?

অনলাইনের এ যুগে বেকার শব্দটি বদ্দ বেশি বেমানান। কারণ অনলাইন সারা বিশ্বকে নিয়ে এসেছে আপনার ঘরের কোণে। এখন ঘরে বসেই সম্ভব হচ্ছে বিদেশে থাকা নিজের কাছের মানুষের সাথে ভিডিও কথোপকথন, যা আজ থেকে মাত্র ৩ বছর আগেও মানুষের কাছে অসম্ভব এবং অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছিল। এখন বিষয়টি গ্রামের স্বল্প শিক্ষিত মানুষদের কাছেও অতিপরিচিত। যোগাযোগ ব্যবস্থার একটি বিশাল আবিস্কার হচ্ছে ইন্টারনেট। এ ইন্টারনেট সারা বিশ্বকে ছোট করে নিয়ে আসার পরই চলে এসেছে বিশাল বড় পরিবর্তন। সারা বিশ্বে ছোট ছোট কোম্পানীগুলোর পাশাপাশি বড় বড় কোম্পানীগুলোও ভাবা শুরু করেছে, তাদের কাজের জন্য সকল স্টাফকে অফিসে নিয়ে এনে বসানোর দরকার নেই। বিস্তারিত জানতে http://genesisblogs.com/freelancing-2/18379

পর্ব:২- ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে প্রচলিত ভুল

ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে প্রচলিত কিছু ভুল ধারণাগুলো নিয়ে আজকের পর্বটি সাজিয়েছি। এ ভুল ধারণাগুলোর বিষয়ে সবার ধারণা পরিস্কার করলে আরো অনেক ফ্রিল্যান্সার তৈরি হবে আমাদের দেশে। বিস্তারিত জানতে http://genesisblogs.com/freelancing-2/18417

পর্ব:৩ – ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফল হতে করনীয়

ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফলতার জন্য টাকার লোভ ত্যাগ করে কাজে দক্ষতা অর্জনের দিকে বেশি নজর দিতে হবে।  দক্ষলোকদের সমাদর সবজায়গার মতই ফ্রিল্যান্সিংয়ের ক্ষেত্রে। সেজন্য সবার প্রথমে বিভিন্ন রিসোর্স থেকে কাজ শিখে সেগুলোর বাস্তবভিত্তিক কাজ করে দক্ষতা অর্জন করলেই অনলাইনে কাজের রেট এবং চাহিদা দুটি বৃদ্ধি পাবে।

বিস্তারিত জানতে http://genesisblogs.com/freelancing-2/18496

পর্ব: ৪- চাকুরি নাকি ফ্রিল্যান্সিং

সকল কাজ শিখে যখন কাজ করার জন্য প্রস্তুত, তখন ক্যারিয়ারের পথ দুটি : চাকুরি  অথবা ফ্রিল্যান্সিং। এ দুই ক্যারিয়ারের কোনটিকে আপনি বাছাই করবেন, সেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবো আজকের পর্বে।

বিস্তারিত জানতেhttp://genesisblogs.com/freelancing-2/18544

jjjjjjjj

 

পর্ব: ৫- বিখ্যাত মার্কেটপ্লেসের পরিচিতি

অনলাইনে যখন কাজ করতে যাবেন , তখন কাজ কোথায় পাবেন, সবার মনের ভিতরের সেই উত্তরটি নিয়ে সাজিয়েছি আজকের এ পর্বটি। অনলাইনে কাজ পাওয়ার জন্য মার্কেটপ্লেসগুলো মানুষের কাছে প্রিয় জায়গা। অনলাইনে অনেকধরনের মার্কেটপ্লেস রয়েছে। মার্কেটপ্লেস কি সেটা নিয়ে আগে আলোচনা করা উচিত।

বিস্তারিত জানতেhttp://genesisblogs.com/freelancing-2/18578

৬ষ্ঠ পর্ব: মার্কেটপ্লেসের বাইরে ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ পাওয়ার উপায়

আমাদের দেশে আপওয়ার্ক (পুর্বের নাম, ওডেস্ক) নিয়ে এত বেশি মাতামাতি হয়েছে যে সবার মধ্যে ধারণা ফ্রিল্যান্সিং মানেই আপওয়ার্কে কাজ করতে হবে। আমি সহ আরো অনেকে যখন বলি আমি ফ্রিল্যান্সিং করি, তখন অনেকেই জানতে চায়, আপওয়ার্কে কত ঘন্টা কাজ করেছি। যদি বলি আপওয়ার্কে আমার কোন প্রোফাইল নাই, তখন সবার কাছেই বিষয়টা আশ্চয লাগে। তাই সবার মধ্যের এ ভুল ধারণাটি (ফ্রিল্যান্সিং মানেই আপওয়ার্ক) দূর করার জন্যই  আজকের এ পর্বটি।

বিস্তারিত জানতেhttp://genesisblogs.com/freelancing-2/18651

পর্ব: ৭ – পেমেন্ট উত্তোলনের ‍উপায়

অনলাইন হতে ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে যে আয় করা হয়, সেটি গ্রহণ করার বিভিন্ন ধরনের মাধ্যম রয়েছে। সকল ফ্রিল্যান্সিংয়ের সাইটে হয়ত সবগুলোর মাধ্যমে ডলার গ্রহণ করা সম্ভব হয়না। মার্কেটপ্লেসগুলোর পেমেন্ট অপশনে গেলে জানা যায়, সেই সাইটগুলো কোন কোন পেমেন্ট মাধ্যম ব্যবহার করে। আবার সব পেমেন্ট মাধ্যম সকল দেশে প্রচলিত না। আজকের পর্বে সকল অনলাইন পেমেন্ট মাধ্যমগুলো নিয়ে আলোচনা করব।

বিস্তারিত জানতেhttp://genesisblogs.com/freelancing-2/18729

পর্ব:৮ – আপওয়ার্ক নিয়ে বিস্তারিত

বাংলাদেশের মানুষদের কাছে জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেসের নাম, আপওয়ার্ক। ওয়েবঠিকানা: upwork.com ।এখানে বায়াররা বিভিন্ন কাজ নিয়ে জব পোস্ট করে। কাজ করতে আগ্রহী ফ্রিল্যান্সাররা সেই কাজ পাওয়ার জন্য বিড করে। এসব বিড দেখে বায়াররা তাদের কাজের জন্য যোগ্য লোককে বাছাই করে। আজ আপওয়ার্ক নিয়ে বিস্তারিত গাইডলাইন দেয়ার চেষ্টা করেছি। আপওয়ার্কে একবার কাজ পেলে পিছনে ফিরে না তাকালেও চলে। আপওয়ার্কে একজন বায়ারের কাছ থেকে ভালো ফিডব্যাক পেলে অন্য বায়াররা ঐ সেলারকে খুব সহজেই বিশ্বাস ও কাজের যোগ্য মনে করে।

বিস্তারিত জানতেhttp://genesisblogs.com/freelancing-2/18749

upwork vvv

পর্ব:৯ – ফাইভার নিয়ে বিস্তারিত

ফাইভারে ফ্রিল্যান্সাররা তাদের সার্ভিস অফার করে পোস্ট করে, যাকে বলা হয় গিগ। এসব গিগগুলো ৫ ডলার- ২০০ ডলারে বিক্রি হয়। এ মার্কেটপ্লেসের লিংক: fiverr.com । ফাইভারে আগেই ফ্রিল্যান্সাররা গিগ বানিয়ে রাখে এবং ক্লাইন্টরা সেটা প্রয়োজন অনুযায়ি কিনে থাকে। ফাইভারে মূলত সবধরনের কাজ পাওয়া যায় । আপনি যেকোন একটি সেক্টরে কাজ শিখেই এখানে কাজ করতে পারবেন। যারা মার্কেট প্লেসে একবারে নতুন তারা খুব সহজেই ফাইভার থেকে কাজ পেতে পারেন।

বিস্তারিত জানতেhttp://genesisblogs.com/freelancing-2/18811

পর্ব:১০ – পিপল পার আওয়ার নিয়ে

পিপল পার আওয়ার ক্তরাজ্যভিত্তিক একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেস। ২০০৭ সালে পিপল পার আওয়ার এর যাত্রা শুরু হয় । এখানে বায়ার সহজে জবের জন্য অফার করতে পারে । আবার যে কাজ করবে সেও তার স্কিল সেল করতে পারবে । এখান থেকে কাজ কিনে আবার এই মার্কেটপ্লেসে সেল করতে পারবেন। এই মার্কেটপ্লেসে ফিক্সড এবং আওয়ার্লি জব করার সুযোগ আছে ।  এ মার্কেটপ্লেসের লিংক: peopleperhour.com

বিস্তারিত জানতেhttp://genesisblogs.com/freelancing-2/18851

পর্ব:১১ – ৯৯ডিজাইন নিয়ে বিস্তারিত

যারা গ্রাফিক্স ডিজাইন জানেন তাদের জন্য সবচাইতে জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেসের নাম হচ্ছে ৯৯ডিজাইন। এই সাইটটিতে শুধুমাত্র গ্রাফিক্স ডিজাইনেরা কাজ করতে পারে। এ মার্কেটপ্লেসের কাজের জন্য কোন বিড করার ঝামেলা নাই কিংবা শক্তিশালী প্রোফাইল থাকার বাধ্যবাধকতা নাই। এখানে  ডিজাইন সম্পর্কিত প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। অর্থাৎ কোন বায়ারের কোন ডিজাইনের কাজ প্রয়োজন হলে তারা এ মার্কেটপ্লেসে এসে প্রতিযোগীতার আয়োজন করে। বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সাররা এসব প্রতিযোগীতাতে অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগীতাতে একজন প্রতিযোগী যতগুলো ইচ্ছা ডিজাইন সাবমিট করতে পারে। নির্দিষ্ট দিন পর্যন্ত প্রতিযোগীতা চলে, শেষের দিন বায়ার যার কাজটি সুন্দর হয়েছে তাকে বিজয়ী ঘোষনা করে। পরে বিজয়ীকে ঘোষিত অর্থ প্রদান করা হয়। সাধারণত একটা লোগো প্রতিযোগীতাতে জিতলে ৩০০ডলার থেকে ১২০০ডলার পর্যন্ত আয় করা যায়।

বিস্তারিত জানতে  http://genesisblogs.com/freelancing-2/18895