কপিরাইট কন্টেন্ট কিভাবে ইউনিক বানাবেন।

Md.Sohel Rana

আমি মোঃসোহেল রানা, ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে চাকরীর পাশাপাশি প্রফেশন হিসেবে বেছে নিয়েছি আইটি ক্ষেত্রটিকে। এসইও, ইমেইল মার্কেটিং, ব্লগিং,গ্রাফিস্ ডিজাইন ইত্যাদি জানতে ও জানাতে ভালোবাসি । তাই যখনই সুযোগ পাই তখনই লিখতে বসে যাই।.You will find me here on Facebook, https://www.facebook.com/sohel.rana.90226
টিউন করেছেন Md.Sohel Rana | March 1, 2014 19:05 | পোস্টটি 581 বার দেখা হয়েছে

কপিরাইট  কন্টেন্ট কিভাবে ইউনিক বানাবেন।


কপিরাইট  ইউনিক কন্টেন্ট হচ্ছে যে কোন সাইটের বা ব্লগের প্রান । আপনার সাইটে যদি কপিরাইট ফ্রী ইউনিক কন্টেন্ট না থাকে তাহলে আপনার সাইট গুগলের কাছে খুব বাজে ভাবে র‍্যাঙ্ক পাবে । এমন কি আপনার সাইট গুগল ব্যান করে দিতে পারে । সুতরাং, আপনি যদি গুগল ও অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন থেকে অরগানিক ট্র্যাফিক পেতে চান (অর্থাৎ, কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে) তাহলে ইউনিক আরটিকেল লিখুন । কিন্তু কিভাবে লিখবেন ইউনিক আর্টিকেল ? আজ আপনাদেরকে সেটাই বলব ।

আপনার কন্টেন্টটিকে তথ্য সমৃদ্ধ করুন: আপনি যদি কোন একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে এক্সপার্ট না হন তাহলে ঐ বিষয়ে ব্লগিং করে কোন লাভ নেই। কিন্তু যদি কোন একটি বিশেষ বিষয়ে এক্সপার্ট হন, তাহলে সেই বিষয়ে আপনার লেখাটিকে তথ্য সমৃদ্ধ করে লিখুন  যতদুর সম্ভব । সব সময় পাঠকের কথা চিন্তা করে লিখুন (যেমন, আপনি একজন পাঠক হিসেবে যা আশা করেন ।) যাতে করে পাঠক আবার আপনার সাইটে ভিজিটে আসে । শুধুমাত্র গুগল বটকে টার্গেট করে কখনও লিখবেন না।

Article-Writing-Services-are-Quite-Easily-Available-Now

আপনার কন্টেন্টটি ডুপ্লিকেট কিনা চেক করুনঃ আপনার কন্টেন্টটি ইউনিক কিনা তা চেক করে তারপরে পাবলিশ করুন অন্যথায় গুগল আপনার সাইটকে র‍্যাঙ্ক দিবে না এবং সার্চ রেজাল্টের মধ্যেও আনবেনা । কন্টেন্টটি ইউনিক কিনা চেক করার জন্য আপনি নিম্নোক্ত সাইট দুইটি ব্যবহার করতে পারেন। যদি সাইটটি দ্বারা কোন ডুপ্লিকেট কিছু পান তাহলে ঐ অংশটা সংশোধন করে তারপরে পাবলিশ করুন ।

১) ডুপ্লিচেকার ২) স্মল এস ই ও টুলস

আপনার কন্টেন্টের ব্যাকরন চেক করুন ঃ যখন কোন কন্টেন্ট লিখেন তখন অবশ্যই আপনার কন্টেন্টের ব্যাকরণ চেক করে বাক্যগুলো সঠিক আছে কিনা দেখে তারপরে পোস্ট পাবলিশ করুন। অন্যথায় আপনি ভিজিটর হারাবেন ।

কপিরাইট ফ্রী ইমেজ ব্যবহার করুনঃ আপনার প্রতিটি কন্টেন্টের মাঝখানে কমপক্ষে একটি করে কপিরাইট ফ্রী ইমেজ ব্যবহার করুন । নিজে ইমেজ তৈরি করুন অথবা কপিরাইট ফ্রী সাইট গুলো থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করুন । যদি একান্তই গুগলের থেকে ডাউনলোড করা ছবি ব্যবহার করতে চান, তাহলে কিছুটা এডিট (রেজুলেশন/পিক্সেল কমান/বাড়ানো, কাটা, জোড়া দেয়া, ছবির উপরে টেক্সট লিখে দেয়া, ইত্যাদি) করে ব্যবহার করুন।

আশা করি , এই পোস্টটি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে ।

 

  • Salek Ahmed

    ধন্যবাদ আপনাকে অনেক উপকার হবে। আমি নতুন ব্লগিং করছি। তাই আমার জন্য এটা খুব জরুরি পোস্ট। http://www.techshoutme.com