অনলাইনে কেনাকাটাই যে যে ব্যাপার গুলোতে সাবধান থাকতে হবে

টিউন করেছেন ZoaHost | July 3, 2014 09:54 | পোস্টটি 462 বার দেখা হয়েছে

অনলাইনে কেনাকাটাই যে যে ব্যাপার গুলোতে সাবধান থাকতে হবে


credit_cards

ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে অনলাইনে কেনাকাটার বিষয়টি দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

শপিংমলে গিয়ে কেনাকাটার ঝামেলা এড়ানোর পাশাপাশি রাস্তার জ্যাম, ধুলোবালি ও মানুষের সঙ্গে ধাক্কাধাকির বিষয়টি খুব সহজেই এড়ানো যায় অনলাইনে কেনাকাটার মাধ্যমে। এ ছাড়া সময় বাঁচানোর বিষয়টি তো রয়েছেই।
এ সব সুবিধার কথা চিন্তা করেই অনলাইনে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে কেনাকাটায় দিন দিন মানুষ বেশ আগ্রহী হয়ে উঠছেন।
তবে অনলাইনে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে কেনাকাটার কিছু সমস্যাও রয়েছে। যারা এর সুবিধাগুলোর কথা চিন্তা করেছেন, তারা হয়ত জানেন না আপনার অজান্তেই ‘চুরি’ হয়ে যেতে পারে আপনার কষ্টার্জিত অর্থ অথবা তৃতীয় পক্ষ জেনে যেতে পারে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য।
একটু সচেতন হলে এ সব ঝামেলা এড়ানো যায় খুব সহজেই। তাতে নিরাপদে থাকবে আপনার কষ্টার্জিত অর্থ।
নিরাপত্তায় সর্বাধুনিক সফটওয়্যার ব্যবহার: কথায় বলে, প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ ভালো। তাই, অনলাইনে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে কেনাকাটার ক্ষেত্রে সর্বাধুনিক সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে অটোমেটিক আপডেট সফটওয়্যার ব্যবহারই উত্তম। তাতে আপনাকে বার বার নতুন করে আপডেট সফটওয়্যার ইন্সটল করতে হবে না।
পাসওয়ার্ড ব্যবহার: সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, মনে রাখার সুবিধার জন্য অনেকেই সব কিছুতে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করছেন, যা ঝুঁকিপূর্ণ।
একই পাসওয়ার্ড ব্যবহারের ফলে আপনার ঝুঁকি বহুলাংশে বেড়ে যায়। কারণ, কোনো হ্যাকার যদি কখনো আপনার কোনো অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড জব্দ করে ফেলে, তাহলে খুব সহজেই আপনার ক্রেডিট কার্ডের পাসওয়ার্ডটি পেয়ে যাবে সে। সেক্ষেত্রে ভিন্ন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করাই নিরাপদ।
পণ্য ডেলিভারিতে নগদ প্রদান: অনলাইনে পণ্য অর্ডারের পর পণ্যটি আপনার হাতে পৌঁছালে পণ্যের মূল্য পরিশোধে নগদ অর্থ প্রদান এ ক্ষেত্রে ঝুঁকি অনেকাংশে কমিয়ে দেয়।
কোম্পানির অফার বিবেচনায় আনা: অনেক সময় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পণ্যের অফার পাওয়া যায় তৃতীয় কোনো কোম্পানির মাধ্যমে। এক্ষেত্রে প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পেতে অফারের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে সরাসরি কোম্পানির ওয়েবসাইটে চলে যান।
এতে একদিকে যেমন অফারের বিষয়ে নিশ্চিন্ত হতে পারবেন, অন্যদিকে অফারটি গ্রহণের মাধ্যমে কোম্পানির সঙ্গে আপনার সুসম্পর্কও তৈরি হবে।
প্রতিষ্ঠানের সার্টিফিকেট যাচাই: কোনো ধরনের লেনদেন করার আগে আপনি যে কোম্পানির সঙ্গে লেনদেন করবেন, সে প্রতিষ্ঠানের সার্টিফিকেট রয়েছে কিনা বিষয়টি যাচাই করতে পারেন। তাহলে আপনার লেনদেনের বিষয়টি সুনিশ্চিত হবে।
পাবলিক কম্পিউটার ব্যবহার থেকে বিরত থাকা: আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে পাবলিক কম্পিউটার ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। এক্ষেত্রে পাসওয়ার্ড চুরির ঝুঁকি থেকে যায়। ব্যক্তিগত কোনো ডিভাইসের মাধ্যমে লেনদেন করাই উত্তম।
এছাড়া ওয়াইফাই সংযোগ সমৃদ্ধ কোনো ডিভাইস ব্যবহারও নিরাপদ নয়।
ইমেইল অ্যাকাউন্টের তথ্যসমৃদ্ধ বিষয় থেকে দূরে থাকা:  আপনার জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় পুরস্কার! অনেক সময়ই এ ধরনের প্রলোভন দেখিয়ে আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস চেয়ে আপনারই মোবাইল ফোনে এসএমএস পাঠাচ্ছে ব্যাংক বা তৃতীয় কোনো প্রতিষ্ঠান। ভুলেও এ ধরনের ফাঁদে পা দেবেন না। এতে আপনি যে কোনো সময় যে কোনো ধরনের বিড়ম্বনায় পড়তে পারেন, যা ধারণার বাইরে। তাই, এ ধরনের প্রলোভন থেকে দূরে থাকুন।
কেনাকাটা করুন স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান থেকে: ওপরের সব ঝামেলা এড়াতে স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে কেনাকাটা করাটাই উত্তম। অনেক ছোটখাট প্রতিষ্ঠানের যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নাও থাকতে পারে।
পন্থাগুলো অবলম্বন করলে আপনি সহজেই ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে অনলাইনে নিশ্চিন্তে লেনদেন বা কেনাকাটা করতে পারবেন।