কাঁচা আম দিয়ে বিভিন্ন মজার রান্নাবান্না

Shahina

শখের বসে মাঝে মাঝে রান্নাবান্না করি। এ সম্পর্কিত লেখাগুলো নেশার মত পড়ি। এবার সবার জন্য কিছু লেখার জন্য চেষ্টা করছি, এ ব্লগে।
টিউন করেছেন Shahina | May 14, 2014 22:53 | পোস্টটি 2,822 বার দেখা হয়েছে

কাঁচা আম দিয়ে বিভিন্ন মজার রান্নাবান্না


 বাজারে প্রচুর কাচা আম পাওয়া যায়। এগুলো বিভিন্ন তরকারিতে ব্যবহার করে রান্নাতে বৈচিত্র আনা যায়। যা খাবার গ্রহণে আগ্রহ বাড়িয়ে দেয়। আজকে সেইরকম কিছু রান্নার রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

এর আগে এ ব্লগে সবরকম ভর্তার রেসিপি নিয়ে একটি পোস্ট দিয়েছিলাম। যারা সেটি মিস করেছেন, তাদের জন্য সেই লিংকটি দিচ্ছি।

সব রকমের ভর্তার রেসিপি একসাথে

কাঁচাআম দিয়ে পাবদা মাছ রান্না

mango_pabda

যা যা লাগবেঃ বড় পাবদা মাছ ৪টি। কাঁচাআম ১টি। আদাবাটা ১ টেবিল-চামচ। রসুনবাটা ১ চা-চামচ। পেঁয়াজ বাটা ১ টেবিল-চামচ। হলুদ ১ চা-চামচ। জিরাগুঁড়া ১ চা-চামচ। মরিচ ৪-৫টি কুচি কুচি করে কাটা। তেল পরিমানমতো। লবণ স্বাদমতো।

রান্নার পদ্ধতি: মাছ পরিষ্কার করে ধুয়ে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে আদা, রসুন, পেঁয়াজবাটা আর কাঁচামরিচ দিয়ে একটু নেড়েচেড়ে দিন। এরপর লবণ আর হলুদ দিয়ে আরও কিছুক্ষণ নেড়ে মাছগুলো ছেড়ে দিন। আধা কাপ পানি দিয়ে চুলায় মাঝারি আঁচে ১০ মিনিট ঢেকে রান্না করুন। মাঝে মাঝে ঢাকনা তুলে দেখবেন লেগে যাচ্ছে কিনা।

চামচ বা খুন্তি দিয়ে নাড়লে  মাছ ভেঙে যেতে পারে। সেজন্য চামচ ব্যবহার না করে  পাত্রটি ঝাকাবেন হালকা হালকা করে।

পানি টেনে আসলে, যখন দেখবেন ঝোল কমে যাচ্ছে তখন আমের টুকরাগুলো দিয়ে দিন। ৫-৭ মিনিট রেখে নামিয়ে ফেলুন।

একই ধরনের রান্না টেংরা মাছ দিয়েও করতে পারেন।

আম দিয়ে বেগুনের তরকারি, তরকারির নাম বেগুন খাশি

mango_begun_khashi

যা যা লাগবে: লম্বা বেগুন ২টি। কাঁচাআম ১টি। ধনেপাতা-কুচি আধা কাপ। পেঁয়াজকুচি ১ কাপ। আদাবাটা ১ টেবিল-চামচ। রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ। জিরাবাটা ১ চা-চামচ। হলুদ ১ চা-চামচ। তেজপাতা ২টি। মরিচকুচি ৪-৫টি। তেল পরিমাণমতো। লবণ স্বাদমতো

রান্নার পদ্ধতি: বেগুন একটু লম্বা রেখে কাটুন। মাঝখান দিয়ে কাটবেন না। আম ৪ ভাগ করুন। বেগুন অল্প তেলে হালকা ভেজে নিন। এবার রান্নার হাঁড়িতে তেল দিয়ে পেঁয়াজ আর মরিচকুচি দিয়ে ভাজুন। এরপর আদা, রসুন, জিরা, হলুদ, তেজপাতা আর লবণ দিয়ে নাড়াচাড়া দিন। আধা কাপের একটু কম পানি দিয়ে মসলা রান্না করুন। এবার বেগুন দিয়ে দিন।

বেগুন ছেড়ে দিয়েই চুলায় মাঝারি আঁচ দিয়ে পাত্র ঢেকে দিন। ৫ মিনিট রান্নার পর কাঠের চামচ দিয়ে আস্তে আস্তে উল্টিয়ে দিন। ঢেকে আরও ১০ মিনিট রান্না করুন।

ঢাকনা খুলে আমের টুকরাগুলো দিয়ে আবার ঢেকে দিন। ৫ মিনিট পর নামিয়ে পরিবেশন পাত্রে ঢেলে উপর দিয়ে ধনেপাতা-কুচি ছিটিয়ে দিন।

তৈরি হয়ে গেল বেগুন খাশি।

সবার প্রিয় ডাল-আম-সাজনা

আম-সজনের-ডাল..........

যা যা লাগবে: ডাল ১ কাপ। সজনে ২০০ গ্রাম। কাঁচাআম ১টি। রসুনের কোয়া ৪-৫টি। পেঁয়াজকুচি ১ কাপ। আদাবাটা ১ চা-চামচ। পাঁচফোড়ন পরিমাণ মতো। হলুদ আধা চা-চামচ। কাঁচামরিচ বা শুকনামরিচ ২টি। তেল পরিমাণ মতো। লবণ স্বাদমতো।

রান্নার পদ্ধতি: সজনেগুলো ১ আঙুল সমান লম্বা করে কাটবেন। আম চার ভাগ করুন। উপরে দেওয়া পরিমানের অর্ধেক রসুন, পেঁয়াজ, মরিচ, লবণ দিয়ে ডাল সিদ্ধ করুন।

ডাল আধা সিদ্ধ হয়ে এলে সজনে দিয়ে সিদ্ধ করুন। এবার কড়াইয়ে তেল দিন। পাঁচফোড়ন ও বাকি উপকরণসহ একটু নেড়েচেড়ে ওই সিদ্ধডাল-সজনে দিয়ে বাগার দিন।

নামানোর ঠিক ৫ মিনিট আগে আমের টুকরাগুলো ডালে দিন। হয়ে গেল মজাদার আম-ডাল-সজনে।

আম দিয়ে এ সুস্বাদু খাবারগুলো রান্না করে পরিবারে সবাইকে নিয়ে মজা করে খেতে থাকুন। আগামী সপ্তাহে কাঠালের বিভিন্ন তরকারির রেসিপি নিয়ে লিখব। সে পযন্ত ভাল থাকুন।