বিশ্বের সবচাইতে রোমান্টিক ৫টি স্থান, যেখানে একবার না গেলেই নয়

টিউন করেছেন ব্লগার ভাই | May 1, 2014 02:49 | পোস্টটি 2,288 বার দেখা হয়েছে

বিশ্বের সবচাইতে রোমান্টিক ৫টি স্থান, যেখানে একবার না গেলেই নয়


বিশ্বজুড়ে অনেক সৌন্দর্য লুকিয়ে আছে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অনেক স্থান সম্পর্কে আমরা জানি। কিন্তু, বলুন তো আমরা কয়জন রোমান্টিক স্থানগুলো সম্পর্কে খোঁজ রাখি? খুব কমই হবে। কিন্তু বিশ্বে বেশ রোমান্টিক মানুষজন রয়েছেন যারা ভোট দিয়ে নির্বাচন করেছেন সব চাইতে রোমান্টিক কিছু স্থানকে। তাদের মতে এই স্থানগুলোর মতো রোমান্টিক এবং সুন্দর পরিবেশ পৃথিবীতে আর নেই। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক সেই রোমান্টিক স্থান গুলোকে, এই জীবনে যেসব স্থানে একবার না গেলেই নয়!

1

ওইয়া, স্যান্টোরিনি, গ্রীস

স্যান্টোরিনি আইল্যান্ডের অসাধারণ সুন্দর পরিবেশকে বিশ্বের সব চাইতে রোমান্টিক স্থান ধরা হয়। সমুদ্রে সূর্যের খেলা, সূর্যাস্ত এবং সূর্যোদয় দেখার জন্য সব চাইতে ভালো জায়গা এটি। প্রতিবছর হাজারো দম্পতি হানিমুন করার জন্য এই স্থানে আসেন।

2

ভেনিস, ইতালি

পানির ওপরে যে শহর তা আর যাই হোক না কেন সব চাইতে অন্যরকম একটি জায়গা। সারাটাক্ষণ নৌকোয় ঘুরাঘুরি এবং অসাধারণ পরিবেশের এই শহরটিকে সবাই বেশ রোমান্টিক স্থান হিসেবেই চিনে থাকেন।

3

বেলিজ

বেলিজ একটি অতুলনীয় সুন্দর এবং সময় কাটানোর জন্য পারফেক্ট দেশ। এর একটি অসাধারণ সুন্দর রিসোর্ট রয়েছে যা সব চাইতে বিখ্যাত। এই রিসোর্টটি বিশ্বজুড়ে অনেক রোমান্টিক দম্পতির হৃদয় কেড়ে নিয়েছে। আর তাদের ভতেই নির্বাচিত হয়েছে এই অপূর্ব সুন্দর রিসোর্টটি।

4

কাসাব্ল্যাংকা, মরক্কো

অ্যাটল্যান্টিক মহাসগর এবং মেডিটেরিয়ান সাগরের বেলাভূমির কারণে অতুলনীয় এই জায়গাটি। আরও রয়েছে অ্যাটলাস পর্বতের তুষারভরা চূড়া যা এই স্থানটির মূল আকর্ষণ। বিশ্বজুড়ে সব চাইতে সুন্দর হানিমুনের স্থান হিসেবেই পরিচিত এই জায়গাটি।

5

মালদ্বীপ

উজ্জ্বল সূর্য, যতদূর চোখ যায় ততোদুর পর্যন্ত বিস্তৃত সমুদ্র সৈকত, হাজার হাজার আইল্যান্ড এবং হৃদয় থামিয়ে দেয়ার মতো সুন্দর পানির নিচের বাগান যা মালদ্বীপকে করেছে অতুলনীয়। আর সকলের মতে এই স্থানটি সব চাইতে কাছের মানুষটিকে ছাড়া দেখা বৃথা। সে কারনেই মালদ্বীপ হয়েছে বিশ্বের সব চাইতে অতুলনীয় রোমান্টিক স্থান।

পোষ্টটি আগে এখানেপ্রকাশিত।

আর সময় হলে আমার এই ব্লগ থেকে একটু ঘুরে আসবেন

>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>ধন্যবাদ সবাইকে<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<