“আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করুন সঠিকভাবে” এর প্রথম পর্ব ::Explore::

টিউন করেছেন Rafiqul Awal | August 18, 2014 11:53 | পোস্টটি 1,199 বার দেখা হয়েছে

“আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করুন সঠিকভাবে” এর প্রথম পর্ব ::Explore::


সবাইকে স্বাগতম জানিয়ে শুরু করছিআপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করুন সঠিকভাবে – ধাপে ধাপে (Start Your Freelancing Career – Step by Step) -এর প্রথম পর্ব - Explore : আপনার অপশন ও আপনার দক্ষতা নির্ধারণ করুন।

ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার Freelancing Career

প্রথম পর্বে যা যা থাকছে

- ফ্রিল্যান্সিং কি?

- ফ্রিল্যান্সিং এর উপর ক্যারিয়ার গড়া উচিত হবে কিনা?

- ফ্রিল্যান্সিং এ কি কি পেশায় কাজ করা যাবে?

- ফ্রিল্যান্সিং এ আপনার অপশন ও আপনার দক্ষতা নির্ধারণ করুন

আসুন শুরু করা যাক আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করার প্রথম পর্ব।

পর্ব -১ : Explore : আপনার অপশন ও আপনার দক্ষতা নির্ধারণ করুন

ফ্রিল্যান্স Freelance_explore_Options-Expertise

ফ্রিল্যান্সিং কি?

যারা নতুন তাদের অনেকেই জানে না অথবা প্রশ্ন থাকে যে ফ্রিল্যান্সিং (Freelancing) কি?  আসলে ফ্রিল্যান্সিং এর পুরো বেপারটাই হচ্ছে আপনার স্বাধীনভাবে কাজ করার ক্ষমতা। অর্থাৎ আপনি কোনো নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের অধীনে না থেকে স্বাধীনভাবে কাজ করা। আর যারা এধরণের কাজ করে তাদেরকে “মুক্তপেশাজীবী” (Freelancer) বলা হয়।

ফ্রিল্যান্সিং এ আগ্রহী হবার প্রধান কারন হচ্ছেঃ

  • আপনি আপনার নিজের সুবিধে অনুযায়ী সময়সূচি বের করে কাজ করতে পাড়ছেন।
  • আপনি ঘরে বসে কাজ করতে পাড়ছেন।
  • আপনকে কারো অধীনে থেকে কাজ করতে হচ্ছেনা। অর্থাৎ আপনার কোন বস নেই এখনে। আপনি আপনার বস।

মুলত, উন্নত দেশগুলো কম খরচে উন্নত মানের সেবার জন্যই তাদের কাজগুলোকে আউটসোর্সিং করে থাকে। সেই সুযোগটিকে আমাদের পার্শবর্তী দেশ ভারত এবং পাকিস্তান খুব ভালভাবে কাজে লাগিয়েছে। যদি আমরাও ফ্রিল্যান্সিং এর এই বিশাল বাজারের সামান্য অংশ কাজে লাগাতে পারি তাবে এটি হতে পারে আমাদের অর্থনীতি মজবুত করার শক্ত হাতিয়ার।

ফ্রিল্যান্সিং এর উপর ক্যারিয়ার গড়া উচিত হবে কিনা?

ফ্রিল্যান্সিং এ কোন লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য ছাড়াই আপনার কোন কাজ শুরু করা উচিত হবে না। এখানে এ full টাইম ও part টাইম ২ ধরনের কাজ এ করা যায়, তবে সেটা পুরপুরি আপনার উপর নির্ভর করে। আপনি যদি কোন নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে দক্ষ বা অভিজ্ঞ হয়ে থাকেন এবং সে অনুযায়ী আপনি প্ল্যান সেট করে এগোতে চান তাহলেই আপনি আপনার সুবিধেমত সময় বের করে full টাইম কাজ করতে পারেন ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস এ। কিন্তু যদি আপনার কোন নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে দক্ষতা বা অভিজ্ঞতা না থাকে, তবে কখনই আপনার বর্তমান চাকুরী ছেড়ে দেয়া যুক্তিযুক্ত হবে না, এর থেকে আপনি part টাইম এর জন্য ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন, যেটা আপানাকে সহায়তা করবে আপনার দক্ষতাকে বাড়িয়ে আপনাকে আরও অভিজ্ঞ একজন মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে, যেটা কিনা আপনাকে আপনার চাকুরী জীবনে আরও সাফল্য এনে দিবে পাশাপাশি আপনাকে এক্সট্রা আয় করতেও সহায়তা করবে। ঠিক যেদিন থেকে আপনার ফ্রিল্যান্সিং থেকে আয়ের উৎস স্থির হবে, সেদিন থেকে আপনার হাতে ক্ষমতা থাকবে আপনার আর্থিক চাহিদামত প্রোজেক্ট এবং ক্লায়েন্ট বাছাই করে কাজ করবার।

ফ্রিল্যান্সিং এ কি কি পেশায় কাজ করা যাবে?

ফ্রিল্যান্সিং কোন সীমা বা কোন গণ্ডির মধ্যে আবদ্ধ নয়। সব ধরনের পেশার কাজ-ই কম বেশি এখানে পাবেন এবং দিন দিন এর পরিধি আরও বাড়ছে। তারপরও কিছু কাজের ক্যাটাগরি গুলোর ধারণা দেয়া যাকঃ

  • গ্রাফিক্স ডিজাইন
  • ওয়েব ডেভলপমেন্ট
  • প্রোগ্রামিং
  • কন্সালটেন্সি
  • অ্যাকাউন্টিং, হিউম্যান রিসোর্স, লিগ্যাল
  • ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ফটোগ্রাফি
  • ইন্টারনেট মার্কেটিং
  • আর্টিকেল রাইটিং
  • ডাটা এন্ট্রি
  • এডমিন সাপোর্ট
  • সফ্টওয়্যার ডেভলপমেন্ট
  • কাস্টমার সাপোর্ট ইত্যাদি

এসব ক্যাটাগরির বাইরেও অনেক ক্যাটাগরির আছে এবং এদের আবার অনেক সাব-ক্যাটাগরি আছে, এক কথায় ফ্রিল্যান্সিং এ করা যায় না বা পাওয়া যায় না এমন কোন কাজ খুব কমই দেখা যায়। সুতরাং আপনি কোন পেশায় কাজ করতে আগ্রহী এবং দক্ষ তা সম্পূর্ণ আপনার উপর নির্ভর করে।

বিস্তারিত কিছু ক্যাটাগরির লিস্ট এখানে পাবেন ->

Job Categories – Elance | All Job Skills – Elance | Job Categories - Freelancer

ফ্রিল্যান্সিং এ আপনার অপশন ও আপনার দক্ষতা নির্ধারণ করুন

আপনার অপশন দক্ষতা নির্ধারণ করুন এবার আসুন ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়ে তুলার জন্য কিভাবে আপনি আপনার অপশনগুলোকে ঠিক করবেন এবং আপনার দক্ষতাকে খুঁজে বের করবেন।  প্রথম যে বিষয়টি মাথায় রাখবেন সেটি হল, আপনি কোন বিষয়ে দক্ষ ও অভিজ্ঞ সেটা ঠিক করা, যদি মনে করেন আপনার কোন কিছু তে এখনও কোন দক্ষতা বা অভিজ্ঞতা অর্জন করেননি সেক্ষেত্রে আপনার যে বিষয়ে কৌতূহল অথবা শখ রয়েছে সেগুলোকে প্রাধান্য দেয়া, কেননা অনেকেরই বিভিন্ন শখ থাকে এবং শখের বশে আমরা অনেক কিছুই করি, সেটা ফটোগ্রাফি হক, লেখালিখি হক, গান গাওয়া হক, আর্ট করা হক, ট্রাভেল করা হক অথবা সারাদিন ফেসবুক ব্যবহার করা হক, যা আমরা অহরহ করে থাকি। আবার আমদের অনেকেরই বিভিন্ন বিষয়ে কৌতূহল থাকে এবং সুযোগ পেলে সেগুলো শিখার আগ্রহও থাকে, যেমন আমি গ্রাফিক্স ডিজাইন এ অনেক বেশি কৌতূহলি, কিন্তু আমি গ্রাফিক্স ডিজাইন খুব একটা পারি না যাও পারি তাও গুগল করে শিখেছি এবং আমার ইচ্ছা একদিন গ্রাফিক্স ডিজাইন এর উপর কোর্স করার। ঠিক এসব বিষয়গুলোই হতে পারে আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়ে তুলার মূল হাতিয়ার। যা হয়ত আপনার অজান্তেই আপনি প্রতিনিয়ত করে যাচ্ছেন কিন্তু তা থেকে কোন আয় করছেন না। ফ্রিল্যান্স এর মার্কেট গুলো ঘাঁটলে এধরণের অনেক কাজ আপনি পাবেন এবং এগুল করে মানুষ অনেক আয়ও করছে।

দ্বিতীয় যে বিষয়টি মাথায় রাখবেন, যদি আপনি প্রফেশনালি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে চান এবং তার জন্য প্রয়োজনই সময় এবং খরচ করতেও আগ্রহী হন, তবে আপনার করনীয় কাজটি হবে আপনি যে সেক্টর এ আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে চান তার উপর খুব ভাল ধারনা নেয়া, প্রয়োজনে রিসার্চ করা এবং আপনার অপশনগুলোকে যাচাই বাসাই করা, যাতে করে আপনি আপনার প্ল্যানটি সঠিকভাবে সেট করে সে অনুযায়ী এগুতে পারেন এবং প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জন এর জন্য কোথাও সময়ও দিতে পারেন।

শেষ যে বিষয়টি মাথায় রাখবেন, যদি আপনি চাকুরীজীবী হন অথবা আপনার কাজের বেস্ততা বা পড়াশুনার কারণে সেভাবে সময় দিতে না পারেন, তবে আপনার জন্য একটাই পরামর্শ থাকবেঃ- আপনি আপনার চাকুরির অথবা আপনার পড়াশুনার বিষয়বস্তু গুলো নিয়ে একটু সময় দিন যাতে করে অনলাইন মার্কেটপ্লেস এ আপনার দৈনন্দিন কাজের ক্ষেত্রগুলোকে কাজে লাগাতে পারেন। আর সে জন্য খুব বেশি নয়, প্রতিদিন ১-২ ঘণ্টা সর্বোচ্চ সময় দিলেই যথেষ্ট। শুধু মার্কেটপ্লেস এসব বিষয়ে কাজের ধরন এবং এর চাহিদা টা কেমন সেটা খেল রাখলেই হবে।

আশা করছি প্রথম পর্ব পরে আপনাদের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার এর শুরুটা কিভাবে হওয়া উচিত তার একটি ধারণা পেলেন, দ্বিতীয় পর্বে আলোচনার বিষয়বস্তু  হলঃ- Research : Your Strengths & Weakness, Find Alternative Niche For Freelancing

***আপনাদের যেকোনো প্রশ্ন থাকলে নির্দ্বিধায় জিজ্ঞাশা করুন নিচের কমেন্ট এ অথবা এই গ্রুপ এ পোস্ট করুন -> Freelance Your Everything!