ভিডিও মার্কেটিং করে ইউটিউবের মাধ্যমে ঘরে বসে আয় (২য়/ শেষ পর্ব)

টিউন করেছেন Afroza Sultana | July 10, 2014 13:04 | পোস্টটি 2,370 বার দেখা হয়েছে

ভিডিও মার্কেটিং করে ইউটিউবের মাধ্যমে ঘরে বসে আয় (২য়/ শেষ পর্ব)


ভিডিও মার্কেটিং করে ইউটিউবের মাধ্যমে ঘরে বসে আয় করা যায় কিভাবে, তা নিয়ে দুই পর্বের ধারাবাহিকের প্রথম পর্ব প্রকাশিত হয়েছে যেখানে আলোচিত হয়েছে কিভাবে ইউটিউব পার্টনার হয়ে, গুগল অ্যাডসেন্স, অ্যাফিলিয়েটের মাধ্যমে আয় করা যায়, এসবের সুবিধা অসুবিধাগুলো কি কি, এসব নিয়ে।

প্রথম পর্বটির লিংকঃ http://genesisblogs.com/freelancing-2/5140

আজ প্রকাশিত হবে দ্বিতীয়/শেষ পর্ব।

উল্লেখ্য আর্টিকেলটির প্রথম পর্ব পড়ে অনেকেই আমাকে রিলেটেড কিছু প্রশ্ন করেছেন, সেগুলর উত্তরও এই পর্বে দেওয়ার চেষ্টা করবো।

গুগল অ্যাডসেন্স, অ্যাফিলিয়েট এর মত নিজের ভিডিও থেকে আয়ের আর একটি মাধ্যম হল স্পন্সরশীপ।

Youtube-Marketing

স্পন্সরশীপ কি?

স্পন্সরশীপ হল কোন কিছুর দায়দায়িত্ব বা সব খরচ বহন করা। ভিডিও মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে এই স্পন্সরশীপ দুই ভাবে হতে পারে।

  1. অন্য কেউ স্পন্সর করে,
  2. নিজের স্পন্সর নিজে করে।

baby-sponsorship

কিভাবে স্পন্সরশীপ কাজে লাগান যায়?

স্পন্সরশীপ কাজে লাগিয়ে কিভাবে আয় করা যায়, তার কয়েকটি পদ্ধতি এখানে আলোচনা করা হল ,

 

  1. অন্য কেউ স্পন্সর করে:

Sponsorship

প্রোডাক্ট প্লেসমেন্ট পদ্ধতি :

প্রোডাক্ট প্লেসমেন্ট পদ্ধতি বলতে বুঝায় একটি ভিডিও চলাকালীন অবস্থায় কোন এক পর্যায়ে কোন নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা কোম্পানির পণ্য বা সেবা সম্পর্কে পরিচয় করিয়ে দেওয়া।

যেমন হতে পারে, সামনে ঈদ আসছে, তো কেউ যদি ফ্যাশন বা গয়না রিলেটেড কোন ভিডিও তৈরি করে এবং তা চলাকালে কোন এক পর্যায়ে যে স্পন্সর করেছে তাঁর পণ্য বা সেবা সম্পর্কে পরিচয় করিয়ে দিল বা হাইলাইট করল। তবে মনে রাখতে হবে যেহেতু ভিডিওটি ফ্যাশন বা গয়না রিলেটেড তাই স্পন্সর যে করবে তাকেও এই রিলেটেডই হতে হবে।

ব্রান্ড ইন্ট্রিগ্রেশন পদ্ধতি:

ব্রান্ড ইন্ট্রিগ্রেশন হল, একটি নির্দিষ্ট পণ্য বা সেবা নিয়েই কোন ভিডিও তৈরি করা যেখানে র অন্য কিছু থাকবে না।

এখানে এমন হতে পারে, যে ব্যক্তি বা কোম্পানি স্পন্সর করেছ তাঁর চাহিদা অনুযায়ী সম্পূর্ণ ভিডিও তৈরি করে দেওয়া যেতে পারে।

প্রি/পোস্ট রোল পদ্ধতি:

এই ব্যাপারটা অনেক তা টিভি বা মিডিয়া বিজ্ঞাপনের মত। যেমন কোন ভিডিও চালু হওয়ার একেবারে শুরুতে বা শেষে যে যে স্পন্সর করেছে তার অ্যাড দেওয়া হয়। কতক্ষণ এই অ্যাড চলবে তা নির্ভর করবে ভিডিওর লেংথ এর অপর।

অ্যাড ব্যানার পদ্ধতি:

অ্যাড ব্যানার হল ব্যানার আকারে ভিডিওতে অ্যাড প্রচার করা। যেমন নিজস্ব তৈরি কোন ভিডিও চলাকালে মাঝে মাঝে স্পন্সরকৃত কোম্পানির অ্যাড ভেসে উঠে। এটি ভিডিও স্ক্রিন এর যে কোন একটি অংশে হতে পারে। তবে সাধারণত বটম লাইন ে হয়ে থাকে, চাইলে এটিকে ক্লোজ করে দেয়া যায়।

 আন্ডার রাইটিং পদ্ধতি:

আমরা মাঝে মাঝে ভিডিও স্ক্রিনে কিছু অ্যাড দেখি, যেগুলো যতক্ষণ ভিডিওটি চলে ততক্ষণ অ্যাডটিও চলতে থাকে, এটি হল আন্ডার রাইটিং। ধরা যাক আমি একটি ভিডিও টিউটোরিয়াল তৈরি করলাম, এবং স্ক্রিনের নিচের দিকে স্পন্সর যে করবে তাদের অ্যাডটি সেট করে দিব। যতক্ষণ ভিডিও চলবে অ্যাডটিও শো হতে থাকবে।এ ক্ষেত্রে অ্যাডটি চাইলেও ক্লোজ করা যাবে না।

উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলো হল যদি অন্য কেউ নিজের তৈরি ভিডিওতে স্পন্সর করে তার সম্পর্কে। সে ক্ষেত্রে যে স্পন্সর করবে তার সাথে ভাল ভাবে চুক্তি করে নিতে হবে। উপরোক্ত পদ্ধতির মাধ্যমে আয় করাটা খুবই সহজ কারণ এর জন্য নিজের ওয়েবসাইট বা অনেক টাকা থাকাটা অত্যাবশ্যকীয় নয়, প্রয়োজন ভাল মানের ভিডিও এবং প্রচুর ট্রাফিক।

 2. নিজের স্পন্সর নিজে করে :

কোন মধ্যস্ততাকারী না রেখে নিজের স্পন্সর নিজেই করা যায়। তাহলে এখান থেকে যা আয় হবে তার সবটাই ভিডিওর মালিক যে তার কাছে থেকে যাবে। এক্ষেত্রে নিজের ব্যবসা বা নিজস্ব ওয়েবসাইট থাকাটা প্রয়োজন।

lk

নিজের ব্যবসা প্রমোট করার মাধ্যমে :

যদি কারো নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বা ওয়েবসাইট থাকে তাহলে সেতির ভিডিও তৈরি করে ব্যবসার প্রমট করতে পারে। এটি এমন হতে পারে, যদি কারো রেস্টুরেন্ট বা ফ্যাশন হাউজ অথবা ট্রেনিং সেন্টার থাকে তাহলে তা নিয়ে ভিডিও তৈরি করতে পারে যাতে ব্যবসা প্রমোট হয়। স্ক্রিনে নিজের অ্যাড দিতে পারে যেখান থেকে সরাসরি অর্ডার দিয়ে বেচাকেনার ব্যবস্থা করা এবং সব ধরণের সুযোগ সুবিধা পাওয়ার ব্যবস্থা করা যায়।

ফ্রিমিয়াম স্টাইলের মাধ্যমে:

ফ্রিমিয়াম স্টাইল বলতে বুঝায় বাড়তি কিছু সুবিধা পাওয়া।

যেমন কেউ এসইও, গ্রাফিক্স বা ওয়েব ডিজাইন রিলেটেড কোন ভিডিও টিউটোরিয়াল তৈরি করে তাতে এই বিষয়ে কিছু টিপস দিয়ে তারপর বলা যায় আরও বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন এখানে,এই বলে স্ক্রিনে ঠিকানা, নাম্বার এই সব দেওয়া যেতে পারে। উল্লেখ্য ভিডিওতে আগেই যে টিপস দেওয়া হয়েছে, এটাই বাড়তি সুবিধা।

এবার সে সব প্রশ্নের উত্তর দেবার চেষ্টা করবো যেগুলো আমাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল প্রথম পর্ব প্রকাশের পর:

ques

প্রশ্ন : আমরা (বাংলাদেশে বসবাসকারি) কি ইউটিউব পার্টনার হতে পারব?

উত্তর: না, পারব না। কারণটা হল নেটওয়ার্ক জনিত সমস্যা। আমাদের দেশের নেটওয়ার্ক এখনও ততটা উন্নত হয়নি বলে এখনও আমরা এই সুবিধা পাচ্ছিনা।

প্রশ্ন : যারা ভিডিও এডিটিং জানে তারা কি ভিডিও মার্কেটিং করতে পারবে?

উত্তর:  শুধু ভিডিও এডিটিং জানলেই ভিডিও মার্কেটিং করা যায় না। এর কারণ এডিটিং শুধু মাত্র একটি অংশ। ভিডিও মার্কেটিং করে আয় করতে হলে বেসিক কিছু জিনিস অবশ্যই জানতে হবে, যেমন ঃ

  • কী ওয়ার্ড সম্পর্কে
  • ডেসক্রিপশন সম্পর্কে
  • ভাল কনটেনট সম্পর্কে
  • কয়ালিটিফুল ভিডিও সম্পর্কে

শুধুমাত্র শেষটি এডিটিং এর সাথে রিলেটেড। সুতরাং শুধু এডিটিং জানলে ভিডিও মার্কেটিং করা যায় না।

প্রশ্ন: ভিডিও মার্কেটিং এর জন্য কি নিজস্ব ওয়েবসাইট অবশ্যয়ই থাকতে হবে?

উত্তর: নিজস্ব ওয়েবসাইট থাকাটা ভাল, কিন্তু না থাকলে যে ভিডিও মার্কেটিং করা যাবেই না তেমন টা নয়। নিজস্ব ওয়েব না থাকলেও ভিডিও মার্কেটিং করা যায়।

সব শেষে বলা যায়, ভিডিও মার্কেটিং করে আয়ের জন্য যেসব মাধ্যম গুলো সবার জন্য সহজ বিশেষ করে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কার্যকর সেগুলো হল,

  • অ্যাফিলিয়েট করে
  • স্পন্সরশীপ এর মাধ্যমে
  • নিজের ব্যবসার প্রমোট করে
  • ফ্রিমিয়াম স্টাইল এর মাধ্যমে

এসবের মাধ্যমে স্বল্প খরচে র তুলনামূলক সহজ এবং ঝামেলাহীন ভাবে ভিডিও মার্কেটিং করে ঘরে বসে আয় করা যায়। একটা কথা অবশ্যই মনে রাখতে হবে এই মাধ্যমে আয় করতে হলে অনেক বেশী ট্রাফিক বাড়াতে হবে, প্রচুর দর্শক থাকতে হবে। তাই ভিডিওটি যাতে সব দিক থেকে কোয়ালিটি সম্পন্ন হয় সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে আর শুধু ২/১ টি ভিডিও আপলোড করলে হবে না নিয়মিত ভিডিও আপলোড করতে হবে।

যেকোন ধরনের সহযোগিতার জন্য ফেসবুক গ্রুপে এসে প্রশ্ন করুন।

  • http://www.virtual-bazar.com Anwar U Kader

    Its Uniq and Very Informative Post Thanx For the Post Apu..

  • Iftekhar

    Thanks for the post. Most of time we face copyright problem for background music in Bangla Natok. After uploading a huge video file of Bangla Natok, we see that video can not be monetized for copyrighted background music. some music can not be removed. In that case there is no alternate except deleting the video. Please focus on this issue for helping us.

  • Bns Bahar

    thanks for valuable post