ফেসবুক পেজ থেকে ইনকাম কিভাবে করতে হয়?

ekram

বর্তমানে অনলাইন মার্কেটার হিসেবে কাজ করছি, ওয়েবডিজাইন এবং গ্রাফিকসটাও নিজের নেশা। আইটি প্রতিষ্ঠান, ন্যাশনাল আইটি ইন্সটিটিউট (https://www.facebook.com/nationalinst) এর সিইও । জেনেসিসব্লগসের প্রতিষ্ঠাতা অ্যাডমিন ।
টিউন করেছেন ekram | May 5, 2016 00:50 | পোস্টটি 2,312 বার দেখা হয়েছে

ফেসবুক পেজ করলে এবং লাইক বাড়ালেই পেজ থেকে ইনকাম করা যায়না। লাইক না বাড়িয়ে যদি লিড বাড়ান, তাহলেই পেজ থেকে ইনকাম সম্ভব।

এর আগে ফেসবুকের মাধ্যমেই ইনকাম নিয়ে টেকটিউনসে টিউন করেছি। যেখানে কি কিভাবে ্করা যায়। কি কি দক্ষতা দরকার হবে। কত ইনকাম সম্ভব। সব বিষয় নিয়ে টিউন করেছি। এরপর অনেকেই আরও পরিস্কার ধারণা চেয়ে আমার পেজে নক করেছে। তার প্রেক্ষিতেই আজকের টিউন।

আগের টিউনটি যারা পড়েননি, তারা পড়ে আসুন: 

http://genesisblogs.com/freelancing-2/19875

আসুন, ফেসবুকের মাধ্যমে ইনকামগুলো দেখি:

ইনকাম-১: ধরি, আপনার পেজ থেকে নারীদের জন্য ড্রেস বিক্রি করবেন।

 কি করবেন?:

একটা পেজ তৈরি করবেন। তারপর সেই পেজে নিয়মিত সুন্দর সুন্দর ড্রেসের ছবি আপলোড করবেন। আপনি যেই ড্রেস বিক্রি করবেন, আমি শুধু সেই ড্রেসের কথা বলছিনা। যেকোন সুন্দর সুন্দর ড্রেসের ছবি আপলোড করেন। আর সাজ-গুজ সম্পর্কিত টিউন পেজে করতে থাকেন।
এবার এ পেজে যে টিউন রয়েছে সেটা সবাইকে জানানোর জন্য এ টিউনগুলোর লিংক অন্যগ্রুপে শেয়ার করতে পারেন। (আরও অনেক পদ্ধতি রয়েছে, সেটি ফেসবুক মার্কেটিং সম্পর্কিত কোর্সে বলব)
তাহলে এত সুন্দর সুন্দর টিউন আপনার পেজটিতে আসে জেনে যারা আপনার পেজে নিজের ইচ্ছাতে লাইক দিবে, তারাই এখানে লিড। যারা লাইক দিল, বুঝা যাবে, এরা সুন্দর ড্রেস দেখতে পছন্দ করে। এবার কিছুদিন পর থেকে পেজে যদি আপনি নিজের ড্রেস বিক্রি করতে চান, সেটি টিউন দিলে এ পেজের মানুষজন ড্রেস কিনার ব্যাপারে আগ্রহী হবে।
যা করবেননা:
ক) কাউকে লাইক দিতে রিকোয়েস্ট পাঠানোর দরকার নাই।
খ) পেজে সারাক্ষণ প্রোডাক্ট বিক্রির জন্য টিউন দিবেননা।

ইনকাম-২: ধরি, অ্যাফিলিয়েশন কিংবা সিপিএর মাধ্যমে ইনকাম করবেন

এবার ধরি, অ্যাফিলিয়েশন কিংবা সিপিএ মাধ্যমে ইনকামের জন্য স্বাস্থ্য সম্পর্কিত কোন পেজ খুললেন। ধরি, আপনি ওয়েট লস প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করবেন।


কি করবেন:
পেজে নিয়মিত স্বাস্থ্য সচেতনামূলক টিউন করবেন। টিউন হতে পারে, ওজন কমানোর বিভিন্ন টিপস নিয়ে। কিংবা ওজন বৃদ্ধির ক্ষতিকর দিক নিয়ে। ইনফ্রোগ্রাফিক, ভিডিও টিউনগুলো বেশি ইফেক্টিভ হবে। সেই টিউনগুলোর লিংক, কিংবা ইমেজটি কিংবা ভিডিওটি স্বাস্থ্য সম্পর্কিত আমেরিকা কিংবা ইউরোপ ভিত্তিক বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে শেয়ার করুন। সেখানে নিয়মিত আমার পেজের এত ভালো ভালো টিউনগুলো পেলে আপনার পেজে লাইক দিতে আগ্রহী হবে। যেহেতু আপনি স্বাস্থ্য কমানোর টিপস নিয়ে পোস্টগুলো শেয়ার করছেন, সেজন্য আপনার পেজে লাইক যারা দিবে, তারা অবশ্যই ওজন বেশি নিয়ে চিন্তিত। ওজন কমানোর ব্যাপারে আগ্রহী দেখেই আপনার পেজে গিয়ে লাইক দিবে।
এবার পেজে সিপিএ লিংক কিংবা অ্যাফিলিয়েশন লিংক দিয়ে ভাল ইনকাম করতে পারবেন।
যা করবেননা:
ক) ফেকলাইক বাড়াবেন না। তাতে প্রোডাক্ট সেল হবেনা
খ) উদ্দেশ্যহীনভাবে কোন টিউন পেজে করবেননা।

এখানে ২টি উপায়ে ইনকাম নিয়ে বিস্তারিত লিখেছি।  আগের টিউনে ৯টি উপায়ে ইনকামের কথা বলেছি। তাছাড়া ফেসবুক মার্কেটিংয়ের দক্ষতা থাকলে লোকাল বিভিন্ন কোম্পানীতে ভাল বেতনে চাকুরির সুযোগও রয়েছে।
ফেসবুকের বিশাল জনগোষ্ঠীকে কাজে লাগিয়ে এখন মানুষ প্রচুর ইনকাম করছেন। যদিও কিছু খারাপ দিকও আছে। এ ইনকামের কথা জেনে, মানুষ ফেসবুকের বুকে মার্কেটিং করে পুরো পরিবেশ নষ্ট করে ফেলছে। এভাবে মার্কেটিং করে ইনকাম সম্ভব হয়না। সাময়িক কিছু হতে পারে। কিন্তু নিয়মিত ইনকাম আসবেনা। কারণ ফেসবুকের অ্যালগারিদমের কারনে আপনার টিউন হয়ত ৫-১০ জন মানুষের কাছে পৌছছে। অনেকগুলো বিষয় জেনে কাজ শুরু করলেই শুধুমাত্র ইনকাম সম্ভব।

ফেসবুককে শুধু সময় নষ্ট করার মাধ্যম হিসেবে না নিয়ে এটাকে আজকে থেকে টাকা ইনকামের মেশিন হিসেবে ব্যবহার শুরু করুন।

 সেজন্য যে যে দক্ষতা অর্জন করতে হবে:

১) লিড সংগ্রহ

২) লিড পরিচযা

৩) সেলস ফানেল

৪) কনটেন্ট ডেভেলপ

৫) সম্ভাব্য কাস্টমারের আচরণ বুঝা

৬) নিউজ ফিড অ্যালগরিদম

৭) সঠিক অডিয়েন্স টার্গেট করা

৮) পেইড অ্যাডভার্টাইজিং

৯) রিমার্কেটিং টেকনিক

১০) ইনফ্লুয়েন্সার হওয়া

১১) মাসিক মার্কেটিং রিপোর্ট পযবেক্ষণ

১২) রিপোর্ট অনুযায়ি মার্কেটিং প্লান তৈরি

১৩) কম্পিটিটরদের অ্যানালাইস করা


যা যা শিখতে হবে, তার আউটলাইন  ডাউনলোড করুন:
http://www.mediafire.com/…/vq5dk7g…/fb+marketing+outline.pdf

বিশ্বের যেকোন প্রান্ত হতে অনলাইনে এ বিষয়ে আমার কাছে কোর্স করতে পারেন। কোর্স ফি মাত্র ৫০০০টাকা।

বিস্তারিত জানার লিংক: ফেসবুকের মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম কোর্স