ফ্রিল্যান্সিং এ নতুন কিন্তু সফলদের আড্ডা (অতিথিঃসাইয়েদ এনামুল হক )

টিউন করেছেন admin | July 11, 2015 08:22 | পোস্টটি 1,539 বার দেখা হয়েছে

বিভিন্ন পত্রিকা, ব্লগ ও সোশ্যাল মিডিয়াতে ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে বিভিন্ন ধরনের আর্টিকেল দেখে ফ্রিল্যান্সিগ সম্পর্কে জানতে পারেন সৈয়দ এনামুল হক ।২০১০ সালে প্রথম ফ্রিল্যান্সিং এ কাজ শুরু করেন ওডেস্ক এ । কিন্তু বেশীদিন করতে পারেন নি। কিন্তু হাল ছাড়েন নি এনামুল । আবার নিজের পুরোনো ওডেস্ক আইডি দিয়ে বিড করা শুরু করেন ২০১২ সালে । বর্তমানে গ্রাফিক ডিজাইন নিয়ে কাজ করলেও ইমেজ এডিটিং বা ফটোশপের ব্যাসিক ডিজাইন নিয়েও কাজ করছেন তিনি । ওডেস্কে কাজ শুরু করলেও ইল্যান্সে কাজ করতেই বেশী স্বাচ্ছন্দবোধ করেন এনামুল । এনামুলের মার্কেট প্লেস গুলোর আইডি-

Marketplace 1 : http://sayedenamul.elance.com

Marketplace 2 : https://www.upwork.com/users/~0180f065f962299b2b

Self Website  : www.clippingpictures.com

unnamed

 

১।  ফ্রিল্যান্সিংয়ে কিভাবে উদ্বুদ্ধ হয়েছিলেন?

এনামঃ বিভিন্ন পত্রিকা, ব্লগ ও সোসাল মিডিয়াতে ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে বিভিন্ন ধরনের আর্টিকেল দেখতে পেতাম ওখান থেকেই মুলত ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে জানতে পারি এবং এক সময় ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য উদ্বুদ্ধ হই।আমি ফ্রিল্যান্সিং-এ আসার আগে একটা কোম্পানীতে চাকুরি করতাম

২।  কবে থেকে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেছিলেন? সাধারণত কি কাজ করেন?

এনামঃ ২০১০ এর শেষের দিকে আমি oDesk এ একটা একাউন্ট করি এবং একাউন্ট করেই কিভাবে ডলার আসবে সেই চেষ্টা শুরু করি, যেটা সাধারনত অনেকেই শুরুতে করে থাকে। যাইহোক ডলার আনার জন্য পেমেন্ট মেথড এ গিয়ে একটা পেওনিয়ার র্কাড এর জন্য আবেদন করি এর কিছু দিনের মধ্যে কার্ডটি আমার হাতে এসে পৌছালেও ডলার আর আসেনা, কারন আমি নিজে কাজ ভাল করে যানতাম না, বিড কিভাবে করে তাও বুঝতাম না, কারো কাছে হেল্প নিব সেরকম কাউকে চিনতাম না ইত্যাদি নানা কারনে ফ্রিল্যান্সিং থেকে ঝরে পরলাম। ফলাফল পেওনিয়ার র্কাড বাসায় ড্রয়ারে পরে থাকা।  প্রায় দুই বছর পরে একদিন মনে হলো অনেকেই পারতেছে তাহলে আমি কেন পারবনা? oDesk গিয়ে দেখি আমার একাউন্টটা ঠিক আছে তার পরে প্রায় 1 মাস প্রতি দিন নিয়মিত বিড করলাম এবং ইমেলের দিকে খেয়াল রাখতাম যেন কোন ইনভাইটেশন আসলে মিস না হয়। তার পরে ২৭/০৮/২০১২  সালে প্রথম একটি কাজের মধ্য দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং জীবনে প্রথম পা রাখলাম।

আমি গ্রাফিক ডিজাইন নিয়ে কাজ করলেও ইমেজ এডিটিং বা ফটোশপের ব্যাসিক ডিজাইন নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করি।

৩। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ শিখেছিলেন কিভাবে?

এনামঃফটোশপ আমার খুব ভাল লাগতো যে কারনে ২০০৪ সালে নিলক্ষেত থেকে একটা বই কিনে বাসায় নিজি নিজে প্রাকটিস করার চেস্টা করতাম। তার পরে আমার এক বড় ভাইয়ের দোকানে প্রাকটিক্যাল কিছু কাজ দেখি। দির্ঘ দিন পরে ২০০৯ সালে একটি ফ্রিল্যান্সিং কোম্পানীতে চাকুরী শুরু করি এবং সেখান থেকেই মুলতো আমি কোয়ালিটি সম্পন্ন কাজগুলি শিখতে পারি।

৪। কোন মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করেন? কেন?

এনামঃআমি সাধারনত ইল্যান্সে কাজ করতে বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করি কারন তাদের রুলস এর কারনে এখানে কম্পিটিটর কিছুটা কম। এছাড়া upwork ও ভাল লাগে। তবে সব চেয়ে ভাল লাগে আমার নিজের ওয়েব সাইট www.clippingpictures.com নিয়ে কাজ করতে।

৫। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজে প্রথমবার কত পেমেন্ট পেয়েছিলেন? কাজ কি ছিল? সেই টাকা দিয়ে কি করেছিলেন?

এনামঃপ্রথমবার 6 ঘন্ট কাজ করে পেমেন্ট পেয়েছিলাম $১০.২৫। যদিও এখন প্রায় ১৪০০০ ঘন্টা কাজের অভিজ্ঞতা যোগ হয়েছে আমার প্রফাইলে, তার পরেও ওই ৬ ঘন্টা কাজের অনুভুতি অনেক বেশি মনে পরে। আমি প্রথম পেমেন্ট উঠিয়েছিলাম $৪১২ । শুরুতেই বলেছিলাম পেমেন্ট নিয়ে মাথা ঘামানোতে আমার কাজই করা হয়নি। তাই মনে মনে ভাবলাম ৪০০-৫০০ ডলার না হওয়া পর্যন্ত ক্যাশ আউট দিবো না। সেই টাকা কিভাবে কি খরচ করেছিলাম মনে নেই।

৬। ফ্রিল্যান্সিং থেকে আয় করা পেমেন্ট কিভাবে উত্তোলন করেন?

এনামঃ সুবিধামত ব্যাংকের মাধ্যমে, Skrill বা পেওনিয়ার যে কোন একটা ব্যাবহার করি।

৭। ফ্রিল্যান্সিংনিয়েআপনারভবিষ্যতপরিকল্পনাকি?

এনামঃভবিষ্যতপরিকল্পনা হচ্ছে আমার সাথে যে ছোট টিমটা কাজ করছে সেই টিমটাকে আরো বড় করা।

৮। আপনার আজকের এটুকু অবস্থানের জন্য কাদের অবদানকে স্মরণ করবেন?

এনামঃ এতটুকু আসার পেছনে আমার বাবার অবদানকে সবার আগে বলবো কারন সে আমাকে নগদ তেমন কোন টাকা দিতে না চাইলেও 40000/- টাকা আমার হাতে তুলে দিয়েছিলেন একটা কম্পিউটার কেনার জন্য কারন আমি HSC তে ভাল রেজান্ট করেছিলাম। এই কম্পিউটারটা না কিনলে হয়তো কাজই শেখার আগ্রহ পেতাম না।

৯। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজে আপনি দিনে কত ঘন্টা ব্যয় করেন? কোন সময়টিতে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন?

এনামঃ আমি সাধারনত দিনের বেলায় সকাল সন্ধ্যা কাজ করি, রাতে আমি কাজ করতে পারিনা কারন রাতে ঘুমাতে না পারলে অনেক কষ্ট হয়। যে কারনে আমি কাজও মনে হয় কমই পাই অন্যদের থেকে।

১০। অনলাইনে আপনার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের প্রতিবন্ধকতাগুলো নতুনদের জন্য জানাতে পারেন।

এনামঃঅনলাইনে কাজের জন্য আমার প্রধান প্রতিবন্ধকতা ছিল কমিউনিকেশন, কারন এখানে ইংরেজি ভাল লিখতে বা বলতে পারার বিকল্প কিছুই নেই। যেটা আমি অনেক কষ্ট করে সাইফুরস থেকে ট্রেনিং নিয়ে একটু একটু চর্চা করে শিখতে হয়েছে এখনো শিখছি।

১১। মেয়েদের জন্য অনলাইনে ক্যারিয়ারকে আপনি কিভাবে দেখছেন?

এনামঃ অনলাইনের এই পেশাটা আসলে মেয়েদের জন্য অনেক বেশি সুবিধাজনক কারন অনেক মেয়েই সংসার সামলাগে গিয়ে বাহিরে গিয়ে চাকুরী করা সম্ভব হয়ে উঠেনা। ব্যাপারটা আমি ভালভাবে অনুধাবন করি কারন আমার স্ত্রী সরকারী চাকুরী করলেও সে অফিস টাইম ছাড়াও যাতায়তের জন্য প্রায় 4 ঘন্টা সময় নষ্ট করতে হয়।

১২। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ করতে আগ্রহীদের সফল হওয়ার পথে অন্তরায় কি বলে মনে করেন?

এনামঃ চেষ্ট আর শ্রম দিতে পারলে অবশ্যই ভাল করা যাবে তবে তকদিরে না থাকলে কিছুই হবেনা।

১৩। অনলাইনে আয় করতে হলে কি কি প্রস্তুতি নিতে হবে , নতুনদের জন্য পরামর্শ দিন।

এনামঃ যে কাজটি করতে বেশি ভাললাগে সেটিকে নিয়েই কাজ করুন, সেটিকেই আপডেট করার চেষ্টা করুন। কোন ধরনের হেল্প লাগলে আমাকে নক করতে পারেন  চেষ্ট করবো হেল্প করার জন্য।

 

জেনেসিসব্লগসের নিয়মিত আয়োজনের উদ্দেশ্য নতুন যারা ফ্রিল্যান্সিংয়ের করছেন, তাদেরকে সবার সাথে পরিচয় করে দেওয়া। যারা ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে আগ্রহী, তারা  এ গল্পগুলো পড়ে অনুপ্রাণিত হলেই স্বার্থক হবে আমাদের এ আয়োজন। নতুন কোন ফ্রিল্যান্সার তাদের সাক্ষাৎকার প্রকাশ করতে চাইলে যোগাযোগ করার জন্য লিংকঃ  আফরোজা সুলতানা

  • http://videosalesworld.com/ Mia khalifa
  • Rafiqun Nabi

    সৈয়দ এনামুল হক ভাইয়ের এটাই কি odesk একাউন্ট?? কারণ অনেক দিন আগেই দেখেছিলাম odesk -এ উনার ১০,০০০ ঘণ্টা পূর্ণ হয়েছে।