ফ্রিল্যান্সিংয়ে নতুন কিন্তু সফলদের আড্ডা (অতিথিঃমো: নজরুল ইসলাম )

টিউন করেছেন admin | June 22, 2015 11:01 | পোস্টটি 1,273 বার দেখা হয়েছে

২০১৩ সাল থেকে এসইও,এসএমএম এর কাজ দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং কাজে যাত্রা শুরু করেন মো: নজরুল ইসলাম  । ফ্রিল্যান্সিং এর পাশা পাশি একটি  বেসরকারী টেলিভিশনেও জব করছেন এবং গ্রাফিক্স সেবা প্রদানকারী একটি প্রতিষ্ঠানের এসইও কনসালটেন্ট হিসেবেও কাজ করছেন নজরুল। আর তাই সময় কম দিতে হয় এবং বিড করার ঝামেলা নেই বলে ” ফাইবার ” কেই বেছে নিয়েছেন নিজের কর্মক্ষেত্র হিসেবে । ছোটবেলার প্রবল ইচ্ছা থেকেই  “চাকরি করব না, চাকরি দিব” মুলনীতিতে নিজস্ব  ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছেন নজরুল যেখানে কর্মসংস্থান হবে নতুন অনেক  তরুনেরও ।

 

Screenshot_1

 

১।  ফ্রিল্যান্সিংয়ে কিভাবে উদ্বুদ্ধ হয়েছিলেন?

 নজরুলঃ ২০১১ সালে সর্ব প্রথম  একটি বাংলা ব্লগ সাইট থেকে অনলাইন ইনকাম সম্পর্কে জানতে পারি। এছাড়া অনলাইনে সার্চ দিয়ে এ বিষয়ে অনেক আর্টিকেল পড়ি। পরবর্তীতে শাহীনুর রহমান ভাইয়ের নিকট থেকে এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে উদ্বুদ্ধ হই। কারন আমি চেয়েছি কিভাবে আমার ইনকাম সোর্স বাড়ানো যায়।

২।  কবে থেকে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেছিলেন? সাধারণত কি কাজ করেন?

 নজরুলঃ ২০১৩ সালে থেকে শুরু করি। এসইও, এসএমএম এর কাজ করি।

৩। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ শিখেছিলেন কিভাবে?

 নজরুলঃ  অনলাইন থেকে কিছু শেখা শুরু। তারপর শাহীনুর রহমান ভাই এর নিকট এবং ২০১৪ সালের শুরুতে ক্রিয়েটিভ আইটিতে এসই্ও কোর্স কমপ্লিট করি। সেই থেকে প্রতিদিন কিছু হলেও অনলাইন থেকে শিখছি আর কাজ করছি।

৪। কোন মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করেন? কেন?

 নজরুলঃ  আমি “ফাইবার” মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করি। কারণ, আমি একটি বেসরকারি টেলিভিশনে জব করি। ওডেস্ক, ইলেন্স এর মতো বিড করা ঝামেলা নেই, ছোট ছোট কাজ, কম সময় দিতে হয়। কাজ ৫ ডলার হলেও আমার প্রতিটি গিগ সেল এভারেজ ২০ ডলারের মতো। এছাড়া গ্রাফিক্স সেবা প্রদান করে এমন একটি প্রতিষ্ঠানের এসইও কনসালটেন্ট হিসেবে কাজ করছি।

৫। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজে প্রথমবার কত পেমেন্ট পেয়েছিলেন? কাজ কি ছিল? সেই টাকা দিয়ে কি করেছিলেন?

 নজরুলঃ  এসএমএম কাজ করে প্রথম পেমেন্ট ৩৫০০ টাকা পেয়েছিলাম। এই টাকা দিয়ে একটি মডেম কিনেছিলাম।

৬। ফ্রিল্যান্সিং থেকে আয় করা পেমেন্ট কিভাবে উত্তোলন করেন?

 নজরুলঃ  ব্যাংক, পেওনিয়ার কার্ড, পেপাল এর মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করি।

৭। ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?

 নজরুলঃ  আমি ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ নিয়ে পড়াশুনা করেছি। আমার ছোটবেলা থেকে প্রবল ইচ্ছা “চাকরি করব না, চাকরি দিব” একদিন নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকবে, আমার প্রতিষ্ঠানে অনেকের কর্মসংস্থান হবে। সেই লক্ষে সামনে এগিয়ে যাচ্ছি। সবাই দোয়া রাখবেন।

৮। আপনার আজকের এটুকু অবস্থানের জন্য কাদের অবদানকে স্মরণ করবেন?

 নজরুলঃ আল্লাহর অশেষ রহমত, সেসব প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তি যাদের কাছ থেকে কাজ শিখেছি, শিখতেছি বিশেষ করে শাহীন ভাই, ইকরাম ভাই, রিফাত ভাই, দিপু ভাই এবং আমার স্ত্রী যে আমাকে প্রেরণা দিয়েছে।

৯। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজে আপনি দিনে কত ঘন্টা ব্যয় করেন? কোন সময়টিতে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন?

 নজরুলঃ দৈনিক ৪-৫ ঘন্টা। যেহেতু আমি ফুলটাইম শিফটিং জব করি তাই যখন সময় পাই তখন কাজ করি। তবে বেশি রাত জেগে কাজ করি না।

১০। অনলাইনে আপনার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের প্রতিবন্ধকতাগুলো নতুনদের জন্য জানাতে পারেন।

 নজরুলঃ অনলাইন ক্যারিয়ার গড়ার মূল প্রতিবন্ধকতাগুলোর মধ্যে হলো:

** আমি স্টুডেন্ট অবস্থায় ফুলটাইম চাকরি শুরু করি। একদিকে ভার্সিটিরে পড়াশুনা অন্যদিকে অফিস দুইয়ে মিলে আমার পক্ষে ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও আমি এর আগে অনলাইন এ নিয়মিত হতে পারিনি। তাই পড়াশুনা শেষ করে ২০১৩ সাল থেকে কাজ শিখতে শুরু করি। নতুনদের জন্য পরামর্শ হল যদি আউটসোর্সিং এ ক্যারিয়ার গড়তে চাও তাহলে এক মিনিটও অযথা সময় নষ্ট না করে ভাল করে কাজ শিখো যেন দেশের সম্মান বয়ে আনতে পারো। আর ছাত্র অবস্থায় ই সবচেয়ে ভাল সময়। কেননা তুমি যখন পড়ালেখা শেষ করে চাকরি খুজবে, ততদিনে তোমার ইনকাম ৫-৮ বছরের চাকরি অভিজ্ঞতার চেয়ে বেশি হবে। তাই তোমাকে চাকরি খুজতে হবে না।

** আপনি ভাল জানেন কিন্তু সঠিক দিকনির্দেশনা না পেলে ভাল ইনকাম করতে পারবেন না।

** পেমেন্ট উঠানো আমার অন্যতম প্রতিবন্ধকতাগুলোর একটি। পেওনিয়ার কার্ড পেতে আমাকে প্রায় নয় মাস অপেক্ষা করতে হয়। ভেরিফাইড পেপাল নেই বলে প্রত্যাশা অনুযায়ী আয় করতে পারছি না।

১১। মেয়েদের জন্য অনলাইনে ক্যারিয়ারকে আপনি কিভাবে দেখছেন?

 নজরুলঃ ইতিবাচক।মেয়েরা ধৈর্য়শীল, পরিশ্রমী, পুরুষদের পাশাপাশি ঘরে বসে ইনকাম করা যায় বলে অনেক উত্তম পেশা।নিজের ইনকাম থাকলে অপরের মুখাপেক্ষী হতে হয় না।

১২। ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ করতে আগ্রহীদের সফল হওয়ার পথে অন্তরায় কি বলে মনে করেন?

 নজরুলঃ প্রথমেই বলব ধৈর্যধারন করতে হবে। ধৈর্য ছাড়া ইনকাম করা সম্ভব না। আমরা যত সহজে বলি অনলাইন থেকে কাড়িকাড়ি টাকা ইনকাম করা যায়, হ্যা যায় তবে সেজন্য আপনাকে অনেক পরিশ্রমী হতে হবে, বিষয়ভিত্তিকÁvb  রাখতে হবে এবং ধৈর্য ধরতে হবে।

১৩। অনলাইনে আয় করতে হলে কি কি প্রস্তুতি নিতে হবে , নতুনদের জন্য পরামর্শ দিন।

 নজরুলঃ যে কাজ করতে চাও সে বিষয়ের উপর ভালভাবে প্রশিক্ষন নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে। নতুবা সফল হতে পারবে না।

জেনেসিসব্লগসের নিয়মিত আয়োজনের উদ্দেশ্য নতুন যারা ফ্রিল্যান্সিংয়ের করছেন, তাদেরকে সবার সাথে পরিচয় করে দেওয়া। যারা ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে আগ্রহী, তারা  এ গল্পগুলো পড়ে অনুপ্রাণিত হলেই স্বার্থক হবে আমাদের এ আয়োজন। নতুন কোন ফ্রিল্যান্সার তাদের সাক্ষাৎকার প্রকাশ করতে চাইলে যোগাযোগ করার জন্য লিংকঃ  আফরোজা সুলতানা