ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়ব কোনদিকে?

মাহমুদুল হাসান সরল

আমার সম্পর্কে বলার মত কিছুই নেই । একদম ছোট একটা মানুষ । শিখতে ভালোবাসি তাই শেখা টাকেই পেশা হিসেবে নিয়েছি। বর্তমানে ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করছি আর নির্মাণাধীন সাফল্যের রাস্তায় হেটে চলেছি! জানি সফল একদিন হবই ।
টিউন করেছেন মাহমুদুল হাসান সরল | December 24, 2014 00:27 | পোস্টটি 815 বার দেখা হয়েছে

বর্তমানে আমকে অনেকেই ফেসবুকে প্রশ্ন করেন ভাইয়া আমি ফ্রীল্যান্সিং করতে চাই তো আমি কোন কাজটি শিখবো ? এই প্রশ্নের জবাবে আমি যা বলতে চাই তা হলঃ আপনাকে আগে চিন্তা করতে হবে আমি কি করতে চাই বা কি শিখতে চাই ! আমি একটা কথা আমার স্টুডেন্টদেরকে বলি যে তোমার মন যা চায় তুমি তাই কর । কেননা আপনার মন যেটা চায় না সেটা আপনি কখনোই ঠিক ভাবে করতে পারবেন না । আর যদি করেনও তাহলে সফল হতে পারবেন না ! প্রত্যেকটা মানুষ দুইটা জিনিস কে বেশী ভালবাসে আর তা হল এক তার পেশা দুই তার নেশা । আপনি হয়ত গান শুনতে পছন্দ করেন কিন্তু গাইতে নয় ! সেই রকম প্রত্যেকটা জিনিসই । গান শুনাটা হয়ত আপনার নেশা , পেশা নয় ! আপনাকে ডিসাইড করতে হবে কোনটা আপনার নেশা আর কোনটা আপনার পেশা । আপনার যদি গ্রাফিক্স ডিজাইন ভাল লাগে তার মানে এই না যে আপনি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে ফ্রীল্যান্সিং করতে পারবেন ? একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে হলে যে গুন গুলু আপনার মাজে থাকা দরকার সে গুলু আপনার মাজে আছে কিনা সেটা নিজেকে প্রশ্ন করতে হবে । আপনি কি ভাল আঁকা আকি করতে পারেন ?
আপনি কি ক্রিয়েটিভ জিনিস চিন্তা করতে পারেন ? কোন ডিজাইন নিয়ে চিন্তা করতে পারেন ? এই তিনটি প্রশ্ন নমুনা মাত্র । আপনি যদি এই সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন তাহলে আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারবেন । এখন কথা হল আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইনার এর ট্রেনিং করে ডিজাইনার হলেন এর কিছু দিন পর দেখা গেল আপনার কাছে আর গ্রাফিক্স ডিজাইন টা ভাল লাগছে না তখন আপনি চাইছে ন ওয়েব ডিজাইন শিখবেন আর সেই ইচ্ছা নিয়ে ওয়েব ডিজাইন শিখা শুরু করলেন ! এই ভাবে কিন্তু আপনি সফল হতে পারবেন না । আপনি যদি সফল হতে চান তাহলে আপনাকে কাজের শুরুতেই ভাবতে হবে । সবার আগে আপনার লক্ষটা কে নির্ধারণ করতে হবে । লক্ষ্য ছাড়া আপনি এগিয়ে যেতে পারবেন না , আর এগিয়ে গেলেও আপনি সফল হতে পারবেন না ! লক্ষ্য ছাড়া আপনার জীবনের সার্থকতা আসবে না ।

Career-Path

প্রতিটা কাজ করার আগে আপনাকে নিজের কাছে প্রশ্ন করতে হবে যেঃ
• আমি কাজটি কেন করব ?
• আমার কোন কাজটি সব থেকে বেশী ভাল লাগে ?
• যেটা করব সেটা কি আমার নেশার জন্য করব নাকি পেশার জন্য করব ?
• আমি কাজটি করতে পারব কিনা ?
• কাজটি করার জন্য যেসকল গুনাবলি থাকা দরকার তা আমার আছে কিনা ?
• আমার জন্য কাজটি উপযুক্ত কিনা ?
• আমার ভবিষ্যৎ কি হবে ?
• আমার উপার্জনের মাধ্যম কি এটাই হবে নাকি সাথে অন্য কিছুও করব ?


এই প্রশ্নের গুলুর উত্তর যদি পেয়ে যান তাহলে আপনার সফলটা কেউ ঠেকাতে পারবে না ।
আপনি যদি ভাল লেখা লিখি করতে পারেন তাহলে আপনি লেখা লিখি কে ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে পারেন । আপনার যদি প্রোগ্রামিং ভাল লাগে তাহলে আপনি ওয়েব ডিজাইন অথবা ওয়েব ডেভেলপমেন্টে ক্যারিয়ার গড়তে পারেন । অনেকেই মনে করেন যে ওয়েব ডিজাইন অথবা ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ শিখতে হলে সিএসসি এর স্টুডেন্ট হতে হয় এটা একদম ভুল ধারনা ! যারা ওয়েব ডিজাইন অথবা ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ করে তারা সবাই কি স্টুডেন্ট? অবশ্যই নয় ! প্রায় ৭৫% ই সিএসসি এর স্টুডেন্ট নয় । চাইলে আপনি ও ওয়েব ডিজাইন অথবা ওয়েব ডেভেলপমেন্টে ক্যারিয়ার করতে পারবেন ।
আপনার যদি সার্চ ইঞ্জিন কে নিয়ে খেলা করতে ভালবাসেন তাহলে ইঞ্জিন সার্চ অপটিমাইজেশনে ক্যারিয়ার গড়তে পারেন ।

এখন শুরুটা করবেন যেভাবে ?

কাজ পেতে হলে কিছু বিষয় অবশ্যই আপনার আয়ত্তে আনতে হবে। তো চলুন দেখে নেওয়া যাক কী শিখবেন?
● ইংরেজীর গুরুত্ব নিশ্চয় আপনাকে বোঝানো লাগবে না। সুতরাং ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফলতার জন্য ইংরেজী শিখুন।
● ৩) এরপর নিচের যেকোনটা বেছে নিন , তবে যত বেশি জানবেন ততই লাভ,
ডাটা এন্ট্রির জন্য-অফিস প্যাকেজ, ওয়েব রিসার্চ, আর্টিক্যাল রাইটিং, ইউটিউব ডিটেইলস ইত্যাদি।
গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর জন্য- Photoshop, Illustrator , Coral Drew , In Design ।
ওয়েব ডিজাইনিং এর জন্য-ফটোশপ, HTML, CSS, Javascript, JQuery,
ওয়েব ডেভেলপিং এর জন্য-HTML, CSS, PHP, Mysql, Sql Etc.
কনটেন্ট ম্যানেজমেন্টের জন্য – WordPress & Joomla ( Basic & Advance )


কাজ কীভাবে শিখবেন, কোথা থেকে শিখবেন?


● অনলাইনে যেকোন কাজ আপনি খুব সহজেই শিখতে পারেন বিভিন্ন টিউটোরিয়ালের মাধ্যমে। টিউটোরিয়াল খুজে পেতে গুগলের সহায়তা নিন।
● ভিডিও দেখে শিখবেন। ইউটিউব ছাড়াও লিন্ডা ইত্যাদির ভিডিও টিউটোরিয়াল রয়েছে। বাংলায় তৈরি করা অনেক ভিডিও টিউটোরিয়াল ইউটিউবে আছে সেগুলু দেখেও শিখতে পারেন।
কিছু স্যাম্পল কাজ আগেই করে রাখুন
আপনি কোন কাজ করতে পারেন সেটি বায়ারকে শুধু মুখে বললেই তো আর কাজ পাওয়া যাবে না। বরং ঐ ধরনের কিছু কাজ আগে থেকে করে রেডি রাখুন এবং বায়ারকে দেখান। তবে আপনার কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। তাছাড়া বাংলা প্রবাদটি তো আপনারও জানা যে “শুকনো কথায় চিড়া ভিজে না”। কাজ পাওয়ার পূর্বশর্ত
ফ্রিল্যান্সিং ই এখন অনেকের মূল পেশা। আবার অনেকেই রয়েছেন অল্প কিছুদিন কাজ পাওয়ার চেষ্টা করে কাজ না পেয়ে হতাশাগ্রস্থ হয়ে ফ্রিল্যান্সিং-ই ছেড়ে দিয়েছেন।বিপরীতভাবে অনেকেই রয়েছেন যারা ধৈর্যের সাথে নিয়মিত চেষ্টা করে গেছেন এবং পরবর্তীতে কাজও পেয়ে গেছেন। এখন তারাই সফল ফ্রিল্যান্সার। সুতরাং একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিম্নোক্ত কিছু বিষয় মেনে চলতে হবে।


● আপনাকে আত্মবিশ্বাসী হতে হবে। খুব সহজেই হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়া চলবে না।
● আপনি যে ধরনের কাজ করতে চান সেসব কাজের কিছু স্যাম্পল আগেই তৈরী করে পোর্টফোলিওতে রাখতে হবে।
● আপনার দক্ষতাগুলি প্রকাশ পায় এমনভাবে সুন্দর একটি কাভার লেটার তৈরী করতে হবে।
● আপনি যে ধরনের কাজ করেন সে কাজের নিত্য নতুন ট্রেন্ডের সঙ্গে পরিচিত হতে হবে এবং সেগুলি শিখে আপনার আয়ত্তে রাখতে হবে।

আগে কাজ করুন, টাকা এমনিতেই পাবেন
আমাদের দেশ থেকে এখন লক্ষ লক্ষ ফ্রিল্যান্সার ওডেস্কে কাজ করছে এবং কোন ঝামেলা ছাড়াই তাদের টাকা হাতে পেয়ে যাচ্ছে। সুতরাং টাকা পাওয়ার ব্যাপারে দুঃচিন্তা না করলেও চলবে। তবে আপনাকে যেটি নিয়ে চিন্তা করতে হবে সেটি হচ্ছে বায়ারের রেটিং এবং কাজটি কিভাবে পাওয়া যায়। কারণ বায়ারের রেটিং ভালো হলে টাকা পাওয়ার ব্যাপারটি নিয়ে বিন্দুমাত্র ঝামেলার আশঙ্কাও নেই। আর কাজটি পেয়ে আপনি সঠিকভাবে করে দিতে পারলে পেওনার, মানিবুকার, চেক, ওয়ার ইত্যাদি অনেক উপায়েই আপনি টাকা তুলতে পারবেন। সুতরাং টাকা কিভাবে পাবেন সে চিন্তা না করে বরং কোন কাজ কীভাবে পাবেন এবং সেটি কীভাবে করবেন সেটি চিন্তা করাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।
সর্বশেষ কথা হল যেটাই শিখুন না কেন ভালো করে না শিখলে কোন মূল্য নেই ।

ফেসবুকে আমি

  • শূন্যের মাঝে

    ভালো বলেছেন