ক্যারিয়ার গঠনে ক্রিয়েটিভ আইটি

টিউন করেছেন Omar Farid | December 26, 2014 10:55 | পোস্টটি 1,510 বার দেখা হয়েছে

ক্যারিয়ার গঠনে ক্রিয়েটিভ আইটি


                                               আসসালামু আলাইকুম ক্যারিয়ার গঠনে ক্রিয়েটিভ আইটির   ভূমিকা অপরিসীম। সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে ১৫০ জন নারীকে ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ক (গ্রাফিকস, ওয়েবডিজাইন) প্রশিক্ষণ দিয়ে স্বাবলম্বী হতে সহযোগিতা করা হয়। এ মহৎ উদ্যোগের সফলতা বাংলাদেশ সরকারকেও বেকার সমস্যা দূর করার জন্য পদক্ষেপ নিতে উৎসাহিত করে। ক্রিয়েটিভ আইটির এ মহৎ উদ্যোগে সহযোগীতা করার জন্য একটা পর্যায়ে বাংলাদেশ সরকারের হাইটেক পার্ক এগিয়ে আসে। পরে হাইটেক পার্ক এবং ক্রিয়েটিভ আইটির যৌথ উদ্যোগে ৮০০জন গ্রাজুয়েটকে (পুরুষ এবং নারী) ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় এবং এখনও চলমান।

                                             আই টি সেক্টরে তথা ক্যারিয়ার গঠনে ক্রিয়েটিভ আইটির অবদান বর্ণনা করতে গেলে শেষ করা সম্ভব নয় তাই আমি  আমার বর্তমান আর ছয়মাস আগে আমার আবস্থানটা কী ছিল তাই আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। অর্থনীতিতে  মাষ্ট্রাস ডিগ্রি নেওয়ার পর চাকরীর জন্য ছুটোছুটি আর যা পাই তা চাই না আর যা চাই তা পাই না এই  সবকিছু নিয়ে মিশ্র একটা অবস্থায় সময় পার করছিলাম। তবে কিছু শৈল্পিক কাজ করার ইচ্ছে ছিল তাই বাসায় বসে আমার কেনা ফোটোসপ বইটি দেখতাম আর নিজে নিজে কিছু করার চেষ্টা করতাম। আর অনলাইনে নিজের অবস্থানটা খুজতাম। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছিল না।

 

                    তাই সিদ্ধান্ত নিলাম আমাকেও ভালো কোন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ নিতে হবে। একটু খোজাখুজির পরই ২০১৪ ফেরুয়ারী মাসে ক্রিয়েটিভ আইটি গ্রুপের সন্ধান পেলাম। সেখানে গ্রফিক্স এর উপর একটি কোর্স এর বিজ্ঞপ্তি দেখলাম সাথে যাচাই করার জন্য ফ্রি দুটি ক্লাশেরও অফার পেলাম। আমার জন্য খুবই ভালো খবর। প্রতিষ্ঠানের পরিবেশও দেখা হবে আর সাথে কোর্সটা কেমন হবে তাও যাচাই করা যাবে। ফ্রি ক্লাশ করলাম ক্লাশ নিলেন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিসিসি এর স্বনামধন্য শিক্ষক মনির হোসেন ভাই। অসাধারন তার উপস্থাপন পদ্ধতি।  সম্পূর্ণ গ্রফিকস্ কোর্সের অভারভিও কালার কনসেপ্ট কাজের বিশাল ক্ষেত্র সর্ম্পকে জানলাম আর সিদ্ধান্ত নিলাম যেভাবেই হোক আমাকে এই কোর্সটা করতেই হবে।

                     এপ্রিল মাসে আমার সময় ও সুযোগ হলো তবে তখনো জানি না আমার জন্য একটি চমক ছিল আর তা হলো ক্রিয়েটিভ আই টি হাইটেক পার্কের যৌথ স্কলারশীপ। স্কলারশীপের জন্য পরীক্ষা দিলাম আর আল্লাহর রহমতে আমি পেয়ে গেলাম আমার পছন্দনীয় কোর্সটি।

                                       চারমাস নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে ক্লাশ করলাম। প্রথমে হলো টুল বেস ক্লাশ, যা নিলেন আজাদ ভাই তার অর্পূব বর্ণনায় খুব অল্প সময়েই আমি ফোটোসপ আর ইলাসট্রেটরের সকল টুলের উপর পারদর্শী হয়ে গেলাম। আমাদের ক্লাশের গ্রুপ লিডার হওয়ার কারণে আমার বন্ধুরা আমাকে প্রায়ই ফোনে গ্রফিকস্ সম্পর্কে প্রশ্ন করত আর আমি সাথে সাথেই তাদের সমস্যার সমাধান দিতে থাকলাম। আমার নিজের উপর আস্থা বেড়ে গেল। এরপর শুরু হলো শাহাদত ভাইয়ের রিয়াল লাইফ প্রজেক্ট যার ফলে আমি শিখলাম কীভাবে বাস্তবে ডিজাইন করতে হয় আর ফ্রি আউটসোসিং ক্লাশ করার মাধ্যমে জানলাম অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করা ও পাওয়ার সবচে কার্যকর কৌশল।

                                      আর এভাবেই শেষ হলো আমার ক্রিয়েটিভ আই টি কোর্সটি। কোর্সটি করার আগে মনির ভাই বলেছিলেন যারা শতভাগ ক্লাশ করবে আর প্রতিটি ক্লাশের প্রজেক্ট সঠিকভাবে সর্ম্পূণ করবে তাদের জন্য আছে চাকরীর ব্যবস্থা। হ্যা মনির ভাই সত্যই বলেছিলেন কোর্সটি শেষ করার পরই ক্রিয়েটিভ আই টি থেকে আমার কাছে চাকরী জন্য ফোন আসে এবং আমার এলাকা ফকিরাপুলের দুটি ডিজাইন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রথম মাস থেকেই ১৫০০০ হাজার টাকা বেতনের চাকরীর অফার আসে।

                                   আমিতো অবাক মাত্র চার মাসের একটা কোর্স করেই আমাকে আর চাকরী খুজতে হচ্ছে না চাকরীই আমাকে খুজছে। আর এই সবকিছুই সম্ভব হয়েছে ক্রিয়েটিভ আই টির কোর্স কারিকুলাম সুন্দর সিডিউল অসাধারণ কাজের পরিবেশ আর মনির ভাইয়ের একনিষ্ঠ প্রচেষ্টা। যখনই আমাদের কোন সমস্যা হয়েছে আমরা সরাসরি মনির ভাইয়ের সাথে তা নিয়ে আলোচনা করেছি আর তিনি সাথে সাথেই আমাদের সমস্যার সমাধান দিয়েছেন। আর এখনতো ক্রিয়েটিভ আই টি আমার ঘরের মত হয়ে গেছে। ডিজাইন সর্ম্পকে যেকোন প্রয়োজনে আমি চলে যাই ক্রিয়েটিভ আই টিতে আর সবসময় সাপোর্ট টিম আমার পাশেই থাকে। বর্তমানে আমি প্রতিদিন ৫-৬ ঘন্টা আডভান্স ডিজাইন শেখার জন্য সময় দিচ্ছি। পিপলস পার আওয়ার আর ৯৯ডিজাইন আর আমাদের     ক্রিয়েটিভ ডিভাইজার (ক্রিয়েটিভ আইটির নিজেস্ব মাক কাজ চলছেই। যখন আমি এই লেখা লিখছিলাম তখনই পি পি এইচ থেকে আর একটা জব অফার আসে।

            ক্রিয়েটিভ আইটি তে গ্রফিকস্ কোর্স সহ  নিম্নোক্ত কোর্সেগুলো পরিচালনা করে আসছে।

  •  গ্রাফিক্স ডিজাইন
  • ওয়েব ডিজাইন
  • এসইও
  • থ্রিডি অ্যানিমেশন
  • অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট

অনলাইনের এ যুগে আমি বেকার সেটি বলা খুবই লজ্জাজনক। আর তাই  ক্রিয়েটিভ আই টি  থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহন করলে তারা সাধারণত আপনাকে সবসময় চার ধরনের সার্ভিস দিয়ে থাকে। যার প্রথম দুটি আমি কোস শেষ করার সাথে সাথে পেয়েছি আর শেষ দুটি ধারাবাহিকভাবে পেয়েই যাচ্ছি।

  1. Job Placement Opportunity.
  2. Outsourcing Facility.
  3. Lifetime Support.
  4. Online Training.

তাই বলছি যদি  ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে চান তা হলে ক্রিয়েটিভ আইটি থেকে কাজ শিখুন প্রচুর সময় দিন সফলতা আসবেই। ধন্যবাদ।

  যেকোন যোগাযোগের জন্যঃ ফেসবুক গ্রুপঃ https://www.facebook.com/groups/creativeit/ ফেসবুক পেজঃ https://www.facebook.com/CreativeBangladesh অফিস লোকেশনঃ মমতাজপ্লাজা (৫মতলা )(ল্যাব এইড হাসপাতালের বিপরীত পাশে), বাড়ি# ৭, রোড# ৪, ধানমন্ডি, ঢাকা ফোনঃ ০১১৯৩০৯৪৫৪৫, ০১৭৯৭১৬২৯৪৯, ০১৭৪০৭৪৭৮৩৪,

  • Asaduzzaman Aktel

    প্রতিটি মানুষ জীবনের বিভিন্ন পর্যায়ে কিছু মূল্যবান স্মৃতি নিয়ে বেঁচে থাকে। সেই স্মৃতির সংখ্যা খুব বেশি হয়না, হয় কম কিন্তু অনভূতির গভীরতা থাকে অনেক বেশী। কিভাবে সল্প সময়ে IT শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করা যায় । অতএব বলা যায়,স্বপ্নকে বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে উন্নত করার জন্য “Creative IT Institute”একটি সফল আইটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান