ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট চুরি হলে কি পদক্ষেপ নিবেন? (বিস্তারিত)

Bns Bahar

Online Marketing Executive Manager at Civin Tech
লেখালেখি করতে ভালো লাগে তাছাড়াও লেখালেখি টাকে খুব উপভোগ করি ।সবার সাথে অভিজ্ঞতা শেয়ার করার চেষ্টা করি।
টিউন করেছেন Bns Bahar | October 19, 2017 13:23 | পোস্টটি 185 বার দেখা হয়েছে

কপিরাইট বলতে এক কথায় বুঝানো হয়, কারো সৃষ্টিকর্ম তার অনুমতি ব্যতিত অন্য কোথাও প্রকাশ করলে সেটা কপিরাইট আইনের আওতায় অন্তর্ভুক্ত।

উধাহরণস্বরূপঃ কেউ যদি আপনার ওয়েবসাইটের আর্টিকেল, ইমেজ কিংবা ভিডিও চুরি করে আপনার অনুমতি ছাড়া তার সাইটে প্রকাশ করে সেটা হল কপিরাইট। কেউ যদি কপিরাইট করে তখন আপনি কি করবেন? আজকে এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

আমাদের দেশে কপিরাইট আইন থাকলে ও তেমন প্রয়োগ হয় না। কিন্তু গুগল মামা এই কপিরাইট আইন টাকে খুব বেশি সম্মান করে। সুতরাং আমরা যারা রিয়েল কন্টেন্ট ক্রিয়েটর কিংবা কন্টেন্ট আউটসোর্স করছি তাদের জন্য খুব ভাল একটা দিক।কপিরাইট আইন নিয়ে কথা বলতে গেলে প্রথমেই DMCA চলে আসে।

DMCA কি?

Digital Millennium Copyright Act বা সংক্ষেপে DMCA । এটি একটি কপিরাইট সংক্রান্ত মার্কিন আইন যা ১৯৯৮ সালে মার্কিন কংগ্রেসে প্রণয়ন করা হয়েছিল এবং সেই বছরের ২8 শে অক্টোবর রাষ্ট্রপতি বিল ক্লিনটন কর্তৃক স্বাক্ষরিত হয়।

কন্টেন্ট চুরকে খুঁজে বের করার সহজ ট্রিক্সঃ

০১) আপনার কন্টেন্টের হেডিং কিংবা কন্টেন্টের ভিতর থেকে কিছু অংশ লিখে গুগলে সার্চ দিতে পারেন। তাহলে রিলেটেড রেজাল্টগুলো দেখাবে।

০২) কপিস্কেপ কিংবা প্লাগরিজম টুলস দিয়েও কন্টেন্ট চুরকে সনাক্ত করা যায়।

০৩) একটা বিষয় খেয়াল করেছি , বেশিরভাগ সময় কম্পিটিটররা কন্টেন্ট চুরি করে। তাই কম্পিটিটর সাইটগুলো মাঝে মাঝে ভিজিট করতে পারেন।

০৪) গুগল অ্যালার্ট অপশনটি চালু করে রাখতে পারেন। ফলে সহজেই জানতে পারবেন কে আপনার কন্টেন্ট চুরি করছে।

০৫) কন্টেন্ট চুরি রোধ করার জন্য আপনার ওয়েবসাইটে ” Copyright Disclaimer ” নামে একটি পেইজ যোগ করতে পারেন।

চুরের বিরুদ্ধে যেভাবে লিগ্যাল একশন নিবেনঃ

১) প্রাথমিক যোগাযোগ: প্রথমত আপনি তার ওয়েবসাইট থেকে ফোন নাম্বার, ইমেইল, ফেইসবুক কিংবা কন্টাক্ট পেইজের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন। কপিরাইট আইন সম্পর্কে তাকে অবহিত করুন এবং কপিরাইট কন্টেন্টটি রিমুভ করার জন্য অনুরোধ করতে পারেন।

২) কন্টেন্ট রিমুভাল নোটিশ: আপনি উপযুক্ত প্রমাণসহ গুগলকে নোটিস করতে পারেন। যেটাকে বলা হয় Copyright Infringement। আপনি গুগল ওয়েবমাস্টার এ লগইন করে গুগলকে কন্টেন্ট রিমুভাল নোটিশ দিতে পারেন।

লিঙ্কঃ কন্টেন্ট রিমুভাল নোটিশ

৩) হুস্টিং কোম্পানি: হুস্টিং কোম্পানির সাহায্য নিতে পারেন। আপনি সহজেই খুঁজে পাবেন যেই সাইটে আপনার কন্টেন্ট পাওয়া গেছে সেই সাইট কোথায় হুস্ট করা। Whois সাইটে এই তথ্যগুলো পাবেন। আপনি সহজেই হুস্টিং কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করতে পারেন এবং তাদেরকে মেইল করতে পারেন। মেইল ফরম্যাট:

DMCA

 

মেইলের রিপ্লাই পাওয়ার জন্য ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। হুস্টিং কোম্পানি যদি লিগ্যাল ডকুমেন্টস চায় তাহলে তা সাবমিট করুন। আপনার অভিযোগের সত্যতা থাকে তাহলে কপিকৃত কন্টেন্টটি রিমুভ করা হবে।

পোস্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।  ফেইসবুকে আমি